দেশের অর্থনীতি চাঙ্গা করতে এলআইসির বেসরকারিকরণ ও বিদেশী বিনিয়োগের ওপর ভরসা কেন্দ্রের

5
দেশের অর্থনীতি চাঙ্গা করতে এলআইসির বেসরকারিকরণ ও বিদেশী বিনিয়োগের ওপর ভরসা কেন্দ্রের

আজ ১ লা ফেব্রুয়ারি, আর আজকেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে বাজেট পেশ করা হয়েছে। এবারের বাজেট যে আগের তুলনায় অনেকটাই আলাদা রকমের হবে সেটা আন্দাজ করা গিয়েছিল আগের থেকেই। কারণ করোনা পরিস্থিতির কারণে এখন দেশের অর্থনীতি একেবারে তলানিতে ঠেকেছে। আর সেটাকে চাঙ্গা করতেই বেসরকারিকরণ ও বিদেশী বিনিয়োগের ওপরে ভরসা রাখল কেন্দ্র।

তাছাড়া এলআইসির শেয়ার বিক্রি করা নিয়েও, বিশেষ করে খোলা বাজারে শেয়ার বিক্রি করার ঘোষণা করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। এখন দেশের সরকারের লক্ষ্য আত্মনির্ভর হয়ে ওঠা। আজ সোমবার বাজেট পেশ করার ক্ষেত্রেও সেই দিক লক্ষ্য করা গেলো। আর সেই কারণেই বিদেশী বিনিয়োগ ও বেসরকারী করণের পথকেই পাথেয় করল কেন্দ্র। বিমাক্ষেত্রে ৭৪% পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারবে সংস্থা গুলো। আর এটাকে কেন্দ্র করেই আগামীতে এক নতুন জোয়ার ও নতুন কর্মসংস্থান আসবে দেশে, এমনটাই মনে করছে কেন্দ্র।

কিন্তু এবার এই ধরনের সিদ্ধান্তে কেমন প্রতিক্রিয়া দেবে সাধারণ মানুষ, সেটাই দেখার। গতবছর যেখানে এলআইসিকে বিলগ্নিকরণ করার কথা বলা হয়েছিল, সেখানেই এবার এলআইসির শেয়ারকে খোলা বাজারে বিক্রি করার কথা ঘোষণা করেছে সরকার, এতে বিমা ক্ষেত্রে তৈরী হবে প্রতিযোগিতা। আর বৃদ্ধি পাবে এলআইসির আয়। বিপিসিএল, এয়ার ইন্ডিয়া ও পবনহংসের বেসরকারিকরণ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

মোট কথা বন্দর গুলোকে আরও বেশী সুন্দর করে তোলার জন্য, আরও ভালো রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বেসরকারিকরণ করা হবে। এই বেসরকারীকরণ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিরোধীরা তাদের দাবি, দেশের সম্পদকে এভাবে বিক্রি করে দিতে চাইছে সরকার।