জেনে নিন রাশি বিশেষে কীভাবে আরাধনা করলে জন্মাষ্টমীর শুভ ফল পাওয়া যায়

7
জেনে নিন রাশি বিশেষে কীভাবে আরাধনা করলে জন্মাষ্টমীর শুভ ফল পাওয়া যায়

ভাদ্র মাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী তিথিতে রোহিণী নক্ষত্রে শ্রীকৃষ্ণ জন্ম জয়ন্তী উৎসব অর্থাৎ জন্মাষ্টমী পালন করা হয়। মিছরি, মালপোয়া, তালের বড়া, ক্ষীর, পায়েস সহকারে ছোট্ট গোপালের আরাধনা করে থাকেন সনাতন ধর্মে বিশ্বাসীরা। আজকের দিনে যদি সব নিয়ম সঠিকভাবে পালন করে গোপালের আরাধনা করা হয় তাহলে সমস্ত মনস্কামনা পূরণ হয়। সংসার সুখে, সমৃদ্ধিতে ভরে ওঠে। হলুদ রঙের গাঁট হলুদ কাপড়ে মুড়িয়ে গোপালের পায়ের কাছে রেখে পুজোর পর সেটিকে টাকা রাখার স্থানে রেখে দিতে হবে। এছাড়াও জন্মাষ্টমীর দিন বাড়িতে ময়ূরের পালক আনলে তা শুভ বলে মানা হয়।

এবার জেনে নিন রাশি বিশেষে কেমন ভাবে শ্রী কৃষ্ণের আরাধনা করলে জন্মাষ্টমীর শুভ ফল পাওয়া যাবে। মেষ রাশির জাতক-জাতিকারা এই দিনে গো মাতাকে মিষ্টি খাওয়ালে ভালো ফল পাবেন। বৃষ রাশির জাতক-জাতিকারা দুধ, দই, রসগোল্লা দিয়ে গোপালের আরাধনা করুন। মিথুন রাশির জাতক-জাতিকারা এইদিন গোপালকে নকুলদানা দিতে পারেন। সঙ্গে গো মাতাকে পালংশাক অথবা ঘাসজাতীয় কোনো খাবার খাওয়ালে ভালো ফল পাবেন।

মাখন এবং মিছরি গোপালের প্রিয় খাবার। কর্কট রাশির জাতক-জাতিকারা তাই এই ভোগ নিবেদন করতে পারেন গোপালের উদ্দেশ্যে। সিংহ রাশির জাতক-জাতিকারা এইদিন পাঁচ রকম ফল দিয়ে গোপালের আরাধনা করবেন। এর সঙ্গে বেল রাখতে পারেন। কন্যা রাশির জাতক-জাতিকারা এইদিন গোপালকে কেশর দেওয়া দুধ নিবেদন করুন। তুলা রাশির জাতক-জাতিকারা কালাকাঁদ এবং সন্দেশ নিবেদন করতে পারেন গোপালের উদ্দেশ্যে।

বৃশ্চিক রাশির জাতকেরা বাসন্তী পোলাও, নকুলদানা, মেওয়া নিবেদন করুন গোপালের কাছে। যাদের রাশি ধনু তারা কেশর মেশানো আমন্ড পুডিং নিবেদন করুন গোপালের কাছে। ধনে ও পোস্ত দিয়ে মকর রাশির জাতক-জাতিকারা গোপালকে আরাধনা করুন। সুগন্ধী ধূপ জ্বালিয়ে কুম্ভ রাশির জাতক জাতিকারা গোপালের পূজা করুন। একইসঙ্গে মিষ্টিওও নিবেদন করতে পারেন। মীন রাশির জাতক-জাতিকারা যেদিন কলা এবং জিপি দিয়ে গোপালের আরাধনা করবেন।