জানুন রহস্যে ঘেরা এই শিবমন্দির সম্পর্কে! যেখানে ১২ বছরে অন্তত একবার বজ্রপাত হয়

16
জানুন রহস্যে ঘেরা এই শিবমন্দির সম্পর্কে! যেখানে ১২ বছরে অন্তত একবার বজ্রপাত হয়

মানুষের মধ্যে কিছু ক্ষেত্রে ধর্ম বিভেদ থাকলেও, আজও একে অপরের ধর্মকে বিশ্বাস করে এমন মানুষ রয়েছে প্রচুর। আর ঠিক সেই কারণেই হিন্দুদের বাড়ির ছেলে মেয়েদের নজর লাগলে তারা যায় মসজিদে, আবার ২৫ শে ডিসেম্বর জড়ো হয় চার্চের সামনে সমস্ত ধর্মাবলম্বীর মানুষ, বাঙালির দুর্গাপূজা তে নিজেদের ধর্ম ভুলে আনন্দে মেতে ওঠে সমস্ত ধর্মের মানুষ।

হিন্দু ধর্মের ৩৩ কোটি দেবতার মধ্যে সবথেকে উপরে থাকে দেবাদিদেব মহাদেব। হিন্দু ধর্মালম্বী মানুষের মধ্যে বিশেষ করে মহিলাদের মধ্যে বাবা মহাদেবের প্রতি একটা আলাদা বিশ্বাস আছে। ভারতের মতো দেশে সেই কারণেই বহু স্থানে রয়েছে শিব মন্দির, বিশেষ করে হিমাচল প্রদেশ কে দেব ভূমি বলে আখ্যায়িত করা হয়।

হিমাচল প্রদেশের বিভিন্ন রহস্যময় মন্দির এর মধ্যে একটি রয়েছে শিব মন্দির, যাকে এক কথায় বলা হয় বিজলী বাবার মন্দির। বিজলী বাবার মন্দির নাম হওয়ার পেছনে একটি কারণ আছে। প্রতি ১২ বছরে অন্তত একবার করেই মন্দিরে বজ্রপাত হয়। কুলুর ব্যাস এবং পার্বতী নদীর সঙ্গমস্থলে এই মন্দির অবস্থিত, যা পুরোপুরি রহস্যে মোড়া। পুরাণে কথিত রয়েছে যে ঠিক ১২ বছর অন্তর যখন বজ্রপাত হয় তখন এই মন্দিরটি দুই ভাগে ভাগ হয়ে যায় এবং সেই মন্দিরের ক্ষতে প্রলেপ দেওয়ার জন্য পূজারী শুধুমাত্র ঘিয়ের প্রলেপ লাগান।