নিজের দলের সদস্য পদ থেকেই বহিস্কৃত হলেন কেপি শর্মা অলি

6
নিজের দলের সদস্য পদ থেকেই বহিস্কৃত হলেন কেপি শর্মা অলি

বিগত বেশ কয়েক মাস যাবত নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলিকে নিয়ে উত্তাল সেই রাষ্ট্রের রাজনীতি। তার দলের সদস্যরাই তার বিরোধিতা করছেন। দলে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে, এই অভিযোগ তুলে সম্প্রতি সংসদ ভেঙে দেন কেপি শর্মা অলি। নেপালের রাজনীতির এই অশান্ত অবস্থা এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। এবার নিজের দলের সদস্য পদ থেকেই বহিস্কৃত হলেন কেপি শর্মা অলি।

দিন যতই এগোচ্ছে, নিজের দলেরই অপর এক প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী পুষ্প কমল দাহাল ওরফে প্রচন্ডের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ছেন কেপি শর্মা অলি। সংসদ ভেঙে দেওয়ার পর নতুন করে জনমত নির্বাচন হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন তিনি। দুই দফার নির্বাচনেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছিলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী। পুষ্প কমল দাহাল ওরফে প্রচন্ডকে দলে কোণঠাসা করে রাখতে কেন্দ্রীয় কমিটিতে নিজের পছন্দমত সদস্য নিয়োগ করতে থাকেন তিনি।

কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সংখ্যা বাড়িয়ে ১১৯৯ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন কেপি শর্মা অলি। তবে তার এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে কেন্দ্রীয় কমিটিতে প্রচন্ডের নেতৃত্বাধীন দল এনসিপি অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে যেত। নির্বাচন ছাড়াই কেন্দ্রীয় কমিটিতে সদস্য নিয়োগ প্রক্রিয়াকে কেন্দ্র করে দলের অভ্যন্তরেই দ্বিমত ছিল। এমতাবস্থায় এনসিপির সদস্য পদ থেকেই অলিকে বহিষ্কার করে দেওয়া হল। নেপালের নির্বাচনী লড়াইয়ের পূর্বে প্রচন্ড এবং অলির এই প্রতিদ্বন্দ্বিতা নেপালের রাজনৈতিক মহলকে বেশ প্রভাবিত করছে।