পূজার আনন্দে মেতে ওঠার আগে জেনে নিন এই নিয়ম গুলি, নইলে বিপদ

8
পূজার আনন্দে মেতে ওঠার আগে জেনে নিন এই নিয়ম গুলি, নইলে বিপদ

আজকে মহাসপ্তমী। শশী থেকে শুরু হয়ে গেছে বাঙালির দুর্গাপূজা। এই পাঁচ দিন মানুষ তার জীবনের সমস্ত দুঃখ কষ্ট ভুলে আনন্দে মেতে থাকতে চান। খাওয়া-দাওয়া হইল রাড্ডা সব কিছুর মাধ্যমে মানুষ নিজেকে ভালো রাখতে চান। হিন্দু মতে,পূজা আনন্দে মেতে ওঠার আগে কিছু নিয়ম জেনে নেওয়া উচিত, যেগুলি সঠিকভাবে না পালন করতে পারলে হতে পারে সমূহ বিপদ। আসুন আজকে জেনে নিন, মা দুর্গার এই পাঁচ দিন আমরা কি কি নিয়ম পালন করতে পারি।

কি করবেন আর কি করবেন না

১) ষষ্ঠী থেকে দশমী, এই পাঁচ দিন সকালবেলা স্নান করে পরিষ্কার জামা কাপড় পড়ে ১০৮ বার দুর্গা নাম জপ করুন। এর ফলে আপনি সকল বিপদ থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

২) এই ৫ দিন গঙ্গা স্নান করুন। যদি গঙ্গাস্নান সম্ভব না হয়, তাহলে বাড়িতে স্নান করার পর গঙ্গা জল ছিটিয়ে দিন। এতে সংসারে সুখ এবং শান্তি বজায় থাকবে।

৩) প্রতিদিন অঞ্জলি দেওয়ার পর সন্তানের কপালে দই হলুদের ফোটা দিয়ে দিন। এটা সন্তান দীর্ঘায়ু হয় এবং সুস্থ এবং সুন্দর জীবন পায়।

৪) প্রতিদিন মায়ের কাছে পুষ্পাঞ্জলী সহকারে পূজা দিন। যদি রোধ সম্ভব না হয় তাহলে কেবলমাত্র সন্ধিপুজো দিন অবশ্যই পুষ্পাঞ্জলী দেবেন। এতে আপনার পরিবারের, সন্তানের মঙ্গল হবে।

৫) পূজোর পাঁচ দিন চুল কাটবেন না। ছেলেটা দাড়ি কামানোর বিষয়ে এই নিয়ম মেনে চলুন।

৬) বিষ্ণু পুরাণ অনুযায়ী, যারা নিষ্ঠা ভাবে পুজো করে তারা এই কয়েকদিন দিনের বেলা ঘুমাবে না।

৭) দশমীর দিন সন্ধ্যায় গুরুজনদের শ্রদ্ধাভরে প্রণাম করুন। এর ফলে আপনার মঙ্গল হবে।

৮) পূজা দিনগুলোতে যদি বাড়িতে কোনো অতিথি আসেন, তাহলে আপনি যেন ত্রুটি না থাকে। এতে আপনার পরিবারের অমঙ্গল হতে পারে।

৯) পুজোর দিনে যদি কেউ সাহায্য চায়, তাহলে তাকে খালি হাতে ফেরাবেন না । নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্য করলে আপনার পরিবারের মঙ্গল হবে।

১০) মা দুর্গার কাছে যে ঘট স্থাপন করা হয় এবং প্রদীপ জ্বালানো হয়, সেখানে বিশেষভাবে নজর দিন। খেয়াল রাখবেন যাতে প্রদীপ কখনো না নিভে যায়, অথবা ঘট যেন উল্টে না যায়, এতে করে অমঙ্গল হতে পারে।

১১) পুজোর কয়েকটা দিন শারীরিক মিলন থেকে বিরত থাকুন। শারীরিক মিলন হলে পূজা পবিত্র ভাবে পালন করা সম্ভব হয় না।

১২) রাস্তায় যদি লেবু লঙ্কা সিঁদুর অথবা হলুদ পড়ে থাকতে দেখেন, তাহলে কখনই সেগুলো ডিঙিয়ে যাবেন না।

১৩) রাস্তায় যদি কখনো দেখেন যে শুকনো লঙ্কা অথবা জবাফুল পড়ে রয়েছে, তাহলে তাকে স্পর্শ করবেন না।