বিয়ের পর কোন কোন চ্যালেঞ্জ সামলাতে হয় মেয়েদের জেনে রাখুন

28
বিয়ের পর কোন কোন চ্যালেঞ্জ সামলাতে হয় মেয়েদের জেনে রাখুন

জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের মধ্যে পড়ে বিয়ে।এ সিদ্ধান্ত এমনই একটি সিদ্ধান্ত যা সঠিক না হলে তছনছ হয়ে যেতে পারে গোটা জীবন। প্রত্যেকে বিয়ে সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। আজকালকার ছেলে অথবা মেয়ে দুজনেই অনেক ভাবনা চিন্তা করে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। বর্তমান প্রজন্ম আগের মত বোকা নয়। কিছুটা ভগবানের হাতে ছেড়ে দেওয়া উচিত। বাকিটা অবশ্যই চিন্তাভাবনা করা উচিত আমাদের। তাই প্রেম করার সময় থেকেই একে অপরকে নিয়ে চিন্তাভাবনা করে নেয় প্রেমিক-প্রেমিকা। এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমরা জানি, বিয়ের পর ঠিক কোন কোন চ্যালেঞ্জ আমাদের সামলাতে হয়। আগে থেকে এই সমস্ত ব্যাপারে ওয়াকিবহাল থাকলে বিয়ের পর কোন সমস্যা এই সমস্যা বলে মনে হয় না।

একাকীত্ব: সবথেকে যে জিনিসটা মানুষের মধ্যে আসে তাহল একাকীত্ব। বাপের বাড়িতে বাবা মাকে চিরদিনের জন্য ছেড়ে আসতে হয় মেয়েদের। নতুন একটি পরিবেশে মানিয়ে নিতে একটু সময় লাগে সকলের। নতুন পরিবেশে নিজের মনের কথা বলতে না পারার জন্য একটু হলেও একাকীত্বে ভোগে মেয়েরা। স্বামীকে সব কথা বলা যায় না, তা আমরা সকলেই জানি।তাই এই পরিস্থিতিতে মানিয়ে নিয়ে সকলের সাথে চলাটা মেয়েদের কাছে অন্তত বড় চ্যালেঞ্জ বলেই মনে করা হয়।

বৌমা হিসেবে দায়িত্ব: বাবা-মায়ের কাছে যে কোন মেয়ে রাজকুমারীর মত বড় হয়, স্বামী এবং সংসার করতে এলে কিছুটা হলেও দায়িত্ব নিতে হয় মেয়েদের। সংসারের সকলের উপর নজর রাখতে হয় মেয়েদের। মেয়ে এবং বৌমা, ছাড়াও আরো অনেক ভূমিকা পালন করতে হয় মেয়েদের। এটাই তাদের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।

স্বনির্ভর বৌমা: চাকুরীজীবী অবস্থায় যদি কেউ বিয়ে করে তাহলে তো কথাই নেই। একইসঙ্গে স্বামী সংসার এবং কাজের স্থান সামলানো সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ একটি মেয়ের পক্ষে। ব্যক্তিগত জীবনে অনেক বোঝাপড়া করতে হয় একটি মেয়েকে। এছাড়াও মা হয়ে যাবার পর সেই দায়িত্ব বেড়ে যায় আরো বেশি।

ব্যক্তিগত পরিসরে রক্ষা: বিয়ের আগে নিজের ব্যক্তিগত সম্পত্তি বলে যা থাকে, তা বিয়ের পর একেবারেই থাকে না। বিয়ের পর সবাইকে সময় দিয়ে নিজেকে সময় দেওয়া অথবা নিজেকে প্রায়োরিটি দেওয়া বড় ব্যাপার। এমতাবস্থায় খুব কম মেয়ে থাকে যে, পর নিজের সখ আগের মতো পূরণ করতে পারে।