জেনে নিন যে কথাগুলি শ্বশুরবাড়িতে কখনই বলা উচিৎ নয় জামাইদের

26
জেনে নিন যে কথাগুলি শ্বশুরবাড়িতে কখনই বলা উচিৎ নয় জামাইদের

শ্বশুর ও জামাই এর সম্পর্ক খুবই গুরু গভীর সম্পর্ক। এটি কোনো মজা বা ঠাট্রা করার সম্পর্ক নয়। তাই কিছু কিছু কথা রয়েছে যা কখনোই জামাইদের শ্বশুরমশাইয়ের সাথে কথাবার্তা বা আলোচনা বলা উচিত নয়। কারণ এই সম্পর্ক অত্যন্ত মাধুর্যের সম্পর্ক। যেসব কথা কখনোই শ্বশুরমশাইকে বলা উচিত নয় জামাইদের সেই কথাগুলি হলো।

প্রথমত শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে নিজের রোজগার সম্বন্ধে কোনো কথাই বলা উচিত নয়। সে শ্বশুর হোক কিংবা শাশুড়ি যেই হোক না কেন কারো সাথে আলোচনা করা উচিত এই বিষয়ে। এই বিষয়ে শ্বশুর বাড়িতে কারো সাথে আলোচনা করে থাকে তাহলে হয়তো আপনাকে অনেকে বোকা ভাববে নয়তো আপনাকে অহংকারী ভাববে।

দ্বিতীয় কথাটি হলো আপনি যদি কোন ফ্ল্যাট কেনার জন্য বা কোনো জমি কেনার জন্য কোনো সমস্যায় পড়ে থাকেন, তা কখনোই শ্বশুরমশাইয়ের সাথে আলোচনা করা উচিত নয়। বিশেষত যদি এই ব্যাপারে টাকার কোন ব্যাপার থাকে তাহলে তো কখনোই তা বলা উচিত নয় শ্বশুরমশাইকে। যদি বলে থাকেন তাহলে আপনার শ্বশুরমশাই আপনাকে ভাববে আপনি খুব সুবিধাভোগী, আপনি মোটেও ভালো মানুষ।

তৃতীয় কথাটি হলো শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে কোনো রান্না যদি পছন্দ না হয়। তা কখনোই বলা উচিত নয়, তা সবসময় গোপন রাখা উচিত। কারণ শ্বশুর ও শ্বাশুড়ি দুজনেই খুব ভালোবেসে তাদের মেয়ে ও জামাইয়ের জন্য রান্না করে থাকে। তাই সেই রান্না সম্বন্ধে যদি কোন খারাপ বক্তব্য শুনে তারা তাহলে তারা খুবই কষ্ট পায়, তাই এই কথাটা সবসময় মনে রাখা উচিত।

চতুর্থ কথাটি হলো শ্বশুরমশাইয়ের আপনি কখনোই তার মেয়ের অর্থাৎ আপনার স্ত্রীর নামে অভিযোগ করা উচিত নয়। যদি এই কাজ করে থাকেন, তাহলে আপনার মত বোকা হওয়াতে এই পৃথিবীতে আর কেউ নেই। কারণ বাবাদের কাছে মেয়েরা সবসময় প্রিয় হয়। তাই মেয়ের সম্বন্ধে কোনো অভিযোগ করলেও, তারা তা কখনোই বিশ্বাস করবে না বরং আপনাকেই খারাপ ভাববে।

উপরিউক্ত এই চারটি কথা সব সময় মনে রাখবেন সেই হবু-জামাই হোক কিংবা বিয়ের পরের জামাই। এই চারটি কথা মেনে চললেই আপনি আপনার শ্বশুরবাড়িতে সব সময় পছন্দের পাত্র হয়ে থাকবেন।