ঠিকমতো হিন্দি বলতে না পারায় বিভিন্ন সিনেমা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল ক্যাটরিনা কাইফকে

11
ঠিকমতো হিন্দি বলতে না পারায় বিভিন্ন সিনেমা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল ক্যাটরিনা কাইফকে

ঠিকমতো হিন্দি বলতে পারেন না বলে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে জায়গা করতে পারেননি ফারদিন খান। একথা আমাদের সকলেরই জানা। তবে সঠিকভাবে হিন্দি না বলতে পারলেও বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের নাম পাকাপাকিভাবে খোদিত করতে পেরেছেন আরেক অভিনেত্রী, ক্যাটরিনা কাইফ। তবে তার  জার্নি এত মসৃণ ছিল না। আজ তিনি যে জায়গায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন, সেখানে দাঁড়িয়ে তার ডেট পাবার জন্য অপেক্ষা করতে হয বহু পরিচালক কে। তবে এমনও দিন গেছে, যখন তাকে একটি সিনেমার মাঝ পথ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সব কিছু মুখ বন্ধ করে সহ্য করতে হয়েছিল তাকে।

সালটা ছিলো ২০০৩। ক্যাটরিনা কাইফ নিজের আত্মপ্রকাশ করেন বুম সিনেমার মাধ্যম দিয়ে। কিন্তু সেই সিনেমা একেবারেই বক্স অফিসে চলে নি। সিনেমার সাথে সাথে মুখ থুবরে পড়ে ছিল ক্যাটরিনা কাইফের ক্যারিয়ারও। এরপর আসল স্ট্রাগল শুরু হয় তার। তাকে কাস্ট করা হয় জন আব্রাহামের বিপরীতে সায়া সিনেমার জন্য। কিন্তু কিছুদিন পর শুটিং শুরু হবার পরে হঠাৎ তিনি জানতে পারেন যে, তাকে সিনেমা থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার পরিবর্তে নেওয়া হয়েছে তারা শর্মাকে। সিনেমাটির পরিচালক ছিলেন মহেশ ভাট। কেন তার সঙ্গে এরকম করা হলো, একথা জানার জন্য তিনি গিয়েছিলেন পরিচালকের কাছে। পরে তিনি জানতে পারেন যে, তার সহ-অভিনেতা জন আব্রাহামের আপত্তিতে তাকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়।

কাটরিনা তখন ভালোভাবে হিন্দি বলতে পারতেন না। তার হিন্দি উচ্চারণ একেবারেই ভাল ছিলনা। তাই তার সঙ্গে কাজ করতে রাজি ছিলেন না জন আব্রাহাম। এই ঘটনা তে প্রথমে ভেঙে পড়লেও পরে এ ঘটনাটি ক্যাটরিনা কাইফের জন্য নিয়ে এলো সুসংবাদ। তার পরিচয় হলো সালমান খানের সঙ্গে। সালমান খান দায়িত্ব নিয়েছেন ক্যাটরিনা কাইফের ক্যারিয়ারের। সমস্ত প্রযোজক এবং পরিচালক এর কাছে অনুরোধ করলেন ক্যাটরিনা কাইফের জন্য।

এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি ক্যাটরিনাকে। একের পর এক বড় ব্যানারের ছবির প্রস্তাব আসতে শুরু করে তার কাছে। সালমান খান থেকে শুরু করে অক্ষয় কুমার, সকলের সঙ্গেই তিনি অভিনয় করেছেন। এরপর আসে সেই সুযোগ। ২০০৯ সালে নিউইয়র্ক সিনেমার জন্য জন আব্রাহাম কে নেওয়া হয় ক্যাটরিনা কাইফের বিপরীতে অভিনয় করার জন্য। ক্যাটরিনা তখন চাইলেই প্রতিশোধ নিতে পারতেন। কিন্তু তিনি তা করেননি। বরং তার বিপরীতে অভিনয় করে আগের অপমানের প্রতিশোধ নিয়েছিলেন ক্যাটরিনা কাইফ।