অবশেষে বোম্বে হাইকোর্টের নির্দেশে রক্ষা কঙ্গনা রানাওয়াতের মণিকর্ণিকা ফিল্মসের অফিস

5
অবশেষে বোম্বে হাইকোর্টের নির্দেশে রক্ষা কঙ্গনা রানাওয়াতের মণিকর্ণিকা ফিল্মসের অফিস

অবশেষে বোম্বে হাইকোর্টের নির্দেশ অনুসারে আপাতত রক্ষা পেল বলিউড “কুইন” কঙ্গনা রানাওয়াতের মণিকর্ণিকা ফিল্মসের অফিস। মঙ্গলবার রাতেই অফিস নির্মাণ করতে গিয়ে অন্ততপক্ষে ১৪টি আইন ভঙ্গের যুক্তি দেখিয়ে অফিস গেটের সামনে নোটিশ ঝুলিয়ে দেয় বৃহন্মুম্বই পুরসভা। শুধু তাই নয়, উপযুক্ত জবাব না পেয়ে বুধবার সকালেই মণিকর্ণিকার অফিস ভাঙার কাজ শুরু করে দেয় বিএমসি।

সকাল থেকেই বিএমসির কার্যকলাপে ক্ষুব্ধ বলিউড অভিনেত্রী টুইট বার্তায় বিএমসির বিরুদ্ধে বারবার নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাকে সমর্থন করেছেন অনেকেই। এরপর আর দেরি না করে নিজের আইনজীবীর মাধ্যমে বোম্বে হাইকোর্টে বিএমসির বিরুদ্ধে রিট পিটিশন করেন কঙ্গনা। হাইকোর্টের বিচারপতি এস কাথাওয়ালার বেঞ্চ বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটে পর্যন্ত বৃহন্মুম্বই পুরসভাকে অফিস ভাঙার কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে।

হাইকোর্টের নির্দেশ, বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটের সময় এই মামলার শুনানি হবে। ততক্ষণ অব্দি বিএমসিকে কাজ বন্ধ রাখতে হবে। উল্লেখ্য, ঘটনার সময় মুম্বাইয়ে ছিলেন না কঙ্গনা। আজকেই নৈনিতাল থেকে মুম্বাই বন্দরে এসে নামেন তিনি। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের দেওয়া হাই প্রোফাইল ওয়াই প্লাস নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে মুম্বাই বন্দর থেকে এসকর্টের মাধ্যমে নিয়ে যান।

কঙ্গনা রানাওয়াতের আইনজীবীর কথায়, মণিকর্ণিকা ফিল্মসের অফিস নির্মাণের কাজে কোনো অসংগতি নেই। বিএফসির তরফ থেকে যে “স্টপ ওয়ার্ক” নোটিশ টাঙানো হয়েছে তাও ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন তিনি। তার অভিযোগ, শুধুমাত্র কঙ্গনাকে হেনস্থা করার জন্যই ক্ষমতার অপব্যবহার করছে বিএমসি এবং মহারাষ্ট্র সরকার। উল্লেখ্য, অফিসে ভাঙচুর চালানোর ঘটনার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে মুম্বাইকে আবারো পাকিস্তানের সাথে তুলনা করে কঙ্গনা লিখেছেন, “ডেথ অফ ডেমোক্রেসি”।