কুম্ভ থেকে মকর রাশিতে গমন করলো বৃহস্পতি! দেখে নিন কি প্রভাব পড়তে চলেছে জাতক-জাতিকাদের জীবনে

5
কুম্ভ থেকে মকর রাশিতে গমন করলো বৃহস্পতি! দেখে নিন কি প্রভাব পড়তে চলেছে জাতক-জাতিকাদের জীবনে

মঙ্গলবার ১৪ ই সেপ্টেম্বর, কুম্ভ রাশি থেকে মকর রাশিতে গমন করলো বৃহস্পতি। বৃহস্পতির এই বক্র চলন আগামী ১৮ ই অক্টোবর পর্যন্ত স্থায়ী হবে। মকর রাশি থেকে আরো একবার কুম্ভ রাশিতে প্রবেশ করবে বৃহস্পতি আগামী ২০ নভেম্বরে। প্রত্যেক রাশির জাতক-জাতিকাদের ভাগ্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে বৃহস্পতির ভূমিকা অনস্বীকার্য। চলুন জেনে নেওয়া যাক বৃহস্পতির এই বক্র চলন এর প্রভাবে কী কী হতে চলেছে প্রত্যেক জাতক-জাতিকাদের জীবনে।

জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে, কোন ব্যক্তির জন্ম ছকে যদি বৃহস্পতি ভালো স্থানে অবস্থান করে তাহলে, সেই ব্যক্তি প্রত্যেক বিপদ আপদ থেকে মুক্তি পেয়ে যায় খুব সহজে। অন্যদিকে বৃহস্পতি স্থান যদি দুর্বল হয় তাহলে জীবনে নানাবিধ সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় সেই ব্যক্তিকে। তাই স্বাভাবিকভাবেই কোন ব্যক্তির জীবনে বৃহস্পতির স্থানের উপর নির্ভর করে সেই ব্যক্তির জীবন কেমন হবে।

২০ নভেম্বর পর্যন্ত মকর রাশি শনির সঙ্গে অবস্থান করবে বৃহস্পতি, যদিও শনি এবং বৃহস্পতি একে অন্যের ওপর খুব একটা প্রভাব বিস্তার করতে পারে না। এছাড়া মকর রাশিতে বৃহস্পতি যে জায়গায় অবস্থান করছে তাতেই ওই রাশির জাতক-জাতিকাদের খুব একটা লাভ হবে বলে মনে হয় না। বৃহস্পতির বক্র চলন এর প্রভাবের ভালো ফল পাবার জন্য সবাইকে কিছু নিয়ম নিষ্ঠা মেনে চলতে হবে।

এই সময়ে যে কোন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়ে নিতে হবে। উচ্চাকাঙ্ক্ষা থাকলে সফল হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। অন্যের প্রতি দয়া দেখানো জরুরি। কঠোর পরিশ্রমের উপর বিশ্বাস রাখতে হবে। বৃহস্পতির বক্র চলন এর প্রভাবে যে রাশির জাতক-জাতিকারা সবথেকে বেশি লাভবান হবেন তারা হলেন, বৃষ রাশি, কন্যা রাশি,তুলা রাশি, বৃশ্চিক রাশি।

এই রাশির জাতক-জাতিকারা আগামী দুই মাসের মধ্যে যে কোনো ভালো খবর পেতে চলেছেন। নতুন কোন প্রকল্প শুরু হওয়ার কল্পনা থাকলে অবশ্যই সাফল্য পাবেন আপনারা। অন্যদিকে মিথুন, কর্কট এবং কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকারা যেকোনো পদক্ষেপ নেওয়ার আগে একবার চিন্তা করে নেবেন। এই সময় স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যায় ভুগতে হবে আপনাদের।

আমাদের দেশ ভারত বর্ষের জন্ম ছকে চাঁদ এবং বুধের প্রভাব রয়েছে এবং দ্বিতীয় এবং পঞ্চম ঘরে রয়েছে বুধ। যেকোনো বিনিয়োগের সঙ্গে যুক্ত থাকলে তা সফল হবার সম্ভাবনা থেকে যায়। বৃহস্পতির বক্র চলন এর প্রভাবে আর্থিক নীতিতে পরিবর্তন আসতে পারে।

১৬ সেপ্টেম্বর কেতুর দশা শুরু হয়ে যাবে যার ফলে সংসদীয় আইনে সংশোধনী আনতে পারে সরকার। কেতু এবং বৃহস্পতির যুগ্মভাবে আগামী দুই মাসের মধ্যে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে বিবাদ হওয়ার যোগ রয়েছে। প্রতিবেশী দেশ আফগানিস্তান এবং পাকিস্তানের সঙ্গে আরও একবার কূটনৈতিক সম্পর্ক খতিয়ে দেখতে পারে ভারত সরকার।