আপার প্রাইমারিতে নিয়োগের জন্য রাজ্য সরকারকে রক্ত দিয়ে চিঠি লিখছেন চাকরিপ্রার্থীরা

7
আপার প্রাইমারিতে নিয়োগের জন্য রাজ্য সরকারকে রক্ত দিয়ে চিঠি লিখছেন চাকরিপ্রার্থীরা

কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ অনুসারে ১০ই মের মধ্যেই আপার প্রাইমারিতে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে ইন্টারভিউয়ের জন্য প্রয়োজনীয় প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করার নির্দেশ পেয়েছিল রাজ্য সরকার। তবে মে মাসের ১০ তারিখ পেরিয়ে যাওয়ার পরেও ইন্টারভিউ এর জন্য প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হলো না। করোনার জন্য ক্রমাগত পিছিয়ে যাচ্ছে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া।

এর ফলে বর্তমান পরিস্থিতিতে ফের অনিশ্চয়তায় ভুগছেন চাকরিপ্রার্থীরা। বিগত প্রায় সাত বছরের বেশি সময় ধরে চাকরি প্রার্থীরা নিয়োগের আশায় দিন গুনছেন। অথচ কোনো না কোনো বাহানায় নিয়োগ প্রক্রিয়া থমকে যাচ্ছে। নিয়োগ নিয়ে দুশ্চিন্তার জেরে চাকরিপ্রার্থীদের রাজ্য সরকারের এবং এসএসসির দরজায় কড়া নাড়ছেন। এসএসসির কাছে ইতিমধ্যেই এই মর্মে ইমেইল পাঠাতে শুরু করেছেন চাকরিপ্রার্থীরা।

তবে নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে হতাশার শিকার হয়ে অনেকেই আবার রাজ্য সরকারকে রক্ত দিয়ে চিঠি লিখতে শুরু করেছেন! স্কুল সার্ভিস কমিশনের সংশ্লিষ্ট আধিকারিক এবং স্কুলশিক্ষা দপ্তরকে পাঠানো হয়েছে সেই চিঠি। প্রসঙ্গত ১০মের মধ্যে ইন্টারভিউয়ের জন্য চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা বের করে ৮ সপ্তাহের মধ্যে প্রার্থী বাছাই করে জুলাই মাসের মধ্যেই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ পেয়েছিল রাজ্য সরকার।

তবে সেই মতো কাজ এগোচ্ছে না। আপার প্রাইমারি চাকরি প্রার্থী মঞ্চের সহসভাপতি সুশান্ত ঘোষের জানিয়েছেন, তারা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বিষয়টি তুলে ধরতে চলেছেন তারা। হাইকোর্টের নির্দেশের পর তারা যে আশার আলো দেখতে শুরু করেছিলেন, বর্তমানে তাদের আশা ক্রমশ কমে আসছে।