স্টেজ ৩ থেকে বাঁচানো সম্ভব হয়েছে ভারতকে

66
স্টেজ ৩ থেকে বাঁচানো সম্ভব হয়েছে ভারতকে

এখন দেশে যেভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে , সেটা অনেকটাই আতঙ্কের। দেশের পরিস্হিতি অনেকটাই উদ্বেগজনক। সরকার সারা দেশে লক ডাউন জারি করেছে, কারণ একটাই সংক্রমণ কমানো। কিন্তু লাগাম লাগছে কোথায়? বেড়েই যাচ্ছে সব। তবে এর মধ্যেই এবার একটি খুশির খবর শোনালো কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী হর্ষবর্ধন ।

তিনি জানিয়েছেন, আসলে এখন সারা দেশে যে পরীক্ষা করা হচ্ছে, তার মধ্যে ৪% মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছে, যেটা কিছুটা হলেও ভালো লক্ষণ। তবে এর মধ্যেই একটা চিন্তার বিষয় ছিল, এখন দেশ কোন স্তরে রয়েছে। ৩ য় স্টেজে ঢুকে গেছে কি? কিন্তু এই নিয়েই উত্তর দিলেন স্বাস্থ্য মন্ত্রী, তিনি জানালেন ,আমরা এখন ভারতকে তৃতীয় স্টেজে ঢোকার থেকে বাঁচাতে পেরেছি। যেটা ভারতের জন্য ভালো খবর। কিন্তু অনেক জায়গায় এই লক ডাউনের মধ্যেই শোনা যাচ্ছে, এক জায়গায় অনেক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে।

তবে এখানেই চিন্তা শেষ হচ্ছে না, কারণ এপ্রিলের শুরুতেই স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছিল, এখন ভারত মাঝামাঝি পর্যায়ে আছে, ২ ও ৩ নম্বর স্টেজের মাঝামাঝি। তাই এখন খুবই চিন্তার। এদিকে জানা গেছে কিছু কিছু জায়গায় তৃতীয় স্টেজে পৌঁছেও গেছে। যেটা কোনো ভাবেই ভালো খবর না। কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রীর এই খবর কিছুটা হলেও এখন স্বস্তি দিচ্ছে।

এদিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রক এইসবের কাছে থেকে শোনা যাচ্ছে একটি তথ্য ও আই সি এম আরের তরফ থেকে শোনা যাচ্ছে আরেকটি তথ্য । আই সি এম আর এর সিনিয়র সায়েন্টিস্ট ডঃ রমন আর গঙ্গাখেদকর জানিয়েছেন, ভারতের করোনা টেস্টের ৮০% এর ক্ষেত্রে দেহে কোনো ধরনের উপসর্গ দেখাই যাচ্ছে না। কিন্তু রিপোর্ট পজিটিভ আসছে। যেটা খুবই চিন্তার। এদিকে সবার টেস্ট করা সম্ভব হচ্ছে না কোনো ভাবেই, আর এই কারণেই যারা রোগীর সংস্পর্শে এসেছিল তাদের বেছে বেছে টেস্ট করাতে হচ্ছে।

যেটা এখন আবার একটি বিশাল চিন্তার বিষয়। এখন দেশে ২৩ হাজারের ওপরে আক্রান্তের সংখ্যা, তার মধ্যে ৭০০ জনের ওপরে মানুষ মারা গেছে ইতিমধ্যে। এখন লক ডাউন চলবে আগামী ৩ রা মে, এখন তারপরে সরকার কি সিদ্ধান্ত নেয় সেটার অপেক্ষায় দেশবাসী। তবে জানা গেছে যে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যেই চূড়ান্ত ভাবে জানা যাবে করোনা আক্রান্তকারীর সংখ্যা ভারতে। কারণ আর বেশী বৃদ্ধি পাবে না আক্রান্তের।