বীমা পলিসির ক্ষেত্রে সরলীকরণ এনে “সরল জীবন বিমা” প্রকল্প চালু করল IRDA

5
বীমা পলিসির ক্ষেত্রে সরলীকরণ এনে

করোনা মহামারী সারা বিশ্বেই প্রতিটি প্রান্তে ছাপ ফেলেছে। এই মহামারী আমাদের দৈনন্দিন জীবনের প্রধান প্রয়োজনগুলি আমাদের বুঝিয়ে দিয়েছে। স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর উন্নতির পাশাপাশি, স্বচ্ছ পরিবেশ এবং তার সাথে জীবন বীমার প্রয়োজনীয়তা করোনা পর্বে হাড়ে হাড়ে টের পাওয়া গিয়েছে। জীবন বিমা এখন আর নিছক “অপচয়” নয়, পরিবারের সুরক্ষার চাবিকাঠি, দেশের মানুষ তা বুঝেছেন।

তাইতো একের পর এক মানুষ যখন মহামারীর কবলে পড়ে প্রাণ হারাচ্ছেন, দেশের দৈনন্দিন সংক্রমিতের সংখ্যা আকাশ ছুঁয়ে ফেলছে, তখন দেশের সর্বস্তরের মানুষ বিমা করানোর প্রয়োজনীয়তা বুঝছেন। সাধারণ মানুষের প্রয়োজনীয়তা অনুসারে “করোনা কবচ”, “করোনা রক্ষক” বা “আরোগ্য সঞ্জীবনী”র মতো একাধিক পলিসি লঞ্চ করছে। ১লা জানুয়ারি, ২০২১ থেকে বিমা নিয়ন্ত্রক IRDA সংস্থার তরফ থেকে বীমা পলিসির ক্ষেত্রে সরলীকরণ এনে “সরল জীবন বিমা” প্রকল্প চালু করা হয়েছে।

এই প্রকল্প অনুযায়ী, পৃথক মেয়াদী জীবন বিমার ক্ষেত্রে সর্বাধিক অর্থের পরিমাণ ২৫ লক্ষ টাকা ধার্য করা হয়েছে। ১৮ বছর থেকে শুরু করে ৬৫ বছর বয়সীরা এই বিমা প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে পারেন। কোনো ব্যক্তির বয়স যখন ৭০ বছর পূর্ণ হবে তখন এই বিমার মেয়াদ শেষ হবে বলে জানানো হয়েছে, এই বিমা প্রকল্পের আওতায় কোনো ব্যক্তি মনে করলে ন্যূনতম ৪ বছর থেকে শুরু করে সর্বাধিক ৪০ বছরের মেয়াদে বিমা নিতে পারেন।

আইআরডিএ সংস্থার নিয়ম অনুসারে বিমার মূল রাশির পরিমাণ ৫ লক্ষ থেকে ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ধার্য করা হয়েছে। সকল বিমা সংস্থাগুলিকে এই নিয়মের আওতায় বিমা বিক্রয়ের নির্দেশ দিয়েছে IRDA। এই নিয়ম অনুসারে জীবন বিমা প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে এবং বিমা প্রকল্পের মেয়াদজুড়ে সকল নিয়মের ক্ষেত্রে সরলীকরণ আনা হয়েছে।