ভবিষ্যৎ জীবন সুখময় করে তুলতে বিনিয়োগ করুন এইসব খাতে

13
ভবিষ্যৎ জীবন সুখময় করে তুলতে বিনিয়োগ করুন এইসব খাতে

বর্তমানের আয় কেবল ভবিষ্যতকে ভালো রাখার জন্যই। তাই যদি নিজের ভবিষ্যতকে ভালো করতে চান, বৃদ্ধ বয়সে কারো কাছে হাত পেতে টাকা নিতে না চান, সুখের জীবন অতিবাহিত করতে চান তাহলে এই প্রতিবেদন আপনার জন্য। মোট কথা অবসর জীবনকে সুখময় করে তোলার জন্য দারুণ এক সুযোগ। কিন্তু সঠিক মতো সুযোগ বেছে নেওয়াটাই মুশকিল, কিভাবে কোথায় কি বিনিয়োগ করবেন? তা নিয়েই আসল চিন্তা।

তবে এবার আপনার সেই চিন্তা দূর করার জন্য পোস্ট অফিসের তরফ থেকে ও ব্যাঙ্কের তরফ থেকে দারুণ সুযোগ নিয়ে এসেছে। নিজের ভবিষ্যতকে সুরক্ষিত করার জন্য ১৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে। খুব কম সময়ের মধ্যেই টাকার পরিমাণ বৃদ্ধি, তবে সেটা নিয়ম কানুন মেনেই। এই সমস্ত কিছুতে আপনি ত্রৈমাসিক হিসেবে টাকা জমাতে পারবেন। বর্তমানে প্রকল্পের সুদের পরিমাণ ৭.৪০%।

প্রকল্পের মধ্যে সর্বাধিক টাকা জমানোর কোনো মেয়াদ বা সীমা নেই, যার মধ্যে অন্যতম আর বি আই এর বন্ড, এর মধ্যে ১৫ লক্ষ টাকা বা তাঁর বেশী বিনিয়োগ করার সুযোগ রয়েছে। এই বন্ডের ক্ষেত্রে নূন্যতম ১০০০ টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন। তবে এখানে সুদের পরিমাণ অনেকটাই ভালো ৭.১৫%।

এখানেই কি শেষ নাকি, বৃদ্ধ নাগরিক দের জন্য সরকারের তরফ থেকেও নানা প্রকল্পের সূচনা করা হয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম প্রধানমন্ত্রী ব্যয় বন্দনা প্রকল্প। ৬০ থেকে শুরু করে তাঁর ওপরের বয়সের মানুষদের জন্যেই বিনিয়োগ। সরকারি যোজনায় টাকা বিনিয়োগ করার নেই কোনো সীমা। এতে টাকা ফ্রড হওয়ার কোনো উপায় নেই। দারুণ সুরক্ষিত এই সব যোজনা। এই প্রকল্পে এক কালীন টাকা বিনিয়োগ করার সুযোগ রয়েছে। যদি আপনি বছরভর পেনশন পেতে চান তাহলে ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ৫৭৮ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে, চাইলে আপনি বেশীও বিনিয়োগ করতে পারেন ১৪ লক্ষ ৪৫ হাজার ৭৮৩ টাকা।

ন্যাশনাল সেভিং স্কিম এর মধ্যে বিনিয়োগ করলে রিটার্ন ভালো। তাছাড়া, এই প্রকল্পের সব থেকে বড় সুবিধা হল আয়করের ৮০ সি ধারার অন্তর্গত আয়করে ছাড়া পাওয়া যাবে।তাঁর সাথে সুদের হার রয়েছে ৬.৮%। কিন্তু এই প্রকল্পের বিনিয়োগ শুধুমাত্র মেয়াদের ওপরেই নির্ভর করবে।।