স্বার্থ পূরণ হয়নি তাই আবার ফিরে যাচ্ছেন! নবাগতদের কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের

11
স্বার্থ পূরণ হয়নি তাই আবার ফিরে যাচ্ছেন! নবাগতদের কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে রাজ্যজুড়ে দলবদলের ঝড় উঠেছিল। দলবদলের সেই মরসুমে তৃণমূল দল ত্যাগ করে একের পর এক রাজনৈতিক নেতাকর্মী বিরোধী বিজেপি শিবিরে গিয়ে নাম লিখিয়েছিলেন। তবে ভোটের ফলাফল ঘোষণার পরপরই তাদের মধ্যে অনেকেই আবার পুরনো দলে ফিরে আসতে চাইছেন। এদের মধ্যে অন্যতমরা হলেন সোনালী গুহ, দীপেন্দু বিশ্বাস। শোনা যাচ্ছে, আরো অনেকেই নাকি দিদির ছত্রছায়ায় ফেরত আসতে চান!

দলের নবাগত নেতাকর্মীদের এহেন মনোভাব কেমন ভাবে দেখছে বিজেপি? বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অবশ্য এই বিষয়টিকে তেমন ভাবে গুরুত্বই দিতে চান না। তিনি মনে করেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সিদ্ধ করার লক্ষ্যেই এরা দল ত্যাগ করে বিজেপি শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন। যখন সেই স্বার্থ পূরণ হলো না তখন তারা আবারও ফিরে যাচ্ছেন! এতে অবশ্য বিজেপি দলের কোনো ক্ষতি নেই।

দিলীপ ঘোষের এদিন বলেছেন, বিজেপি দলে থেকে যাদের উদ্দেশ্য সফল হবে না, তারাই প্রকৃত যোদ্ধার মতো লড়াই না করে মাঝপথেই পালিয়ে যাচ্ছেন। কার্যত ভয় পেয়েই পুরনো দলে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সোনালী গুহ এবং দীপেন্দু বিশ্বাসরা! এমনটাই মনে করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

প্রসঙ্গত, শনিবার তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে সোশ্যাল মিডিয়ায় চিঠি দেন সোনালী গুহ। চরম আবেগপূর্ণ হয়ে দল ত্যাগ করার মত ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। চিঠির মর্মার্থ ছিল এই। বর্তমানে তিনি আবার তৃণমূল শিবিরে ফিরে আসতে চান। এদিকে আবার বসিরহাট দক্ষিণের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাসও গেরুয়া শিবির থেকে বেরিয়ে এসে আবার তৃণমূল শিবিরে যোগদান ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। দলের তরফের সিদ্ধান্ত অবশ্য এখনও জানা যায়নি।