মালদা ইসকনের উদ্যোগে রথযাত্রার সূচনা

9
মালদা ইসকনের উদ্যোগে রথযাত্রার সূচনা

মালদা,১ জুলাই : সারা বিশ্বের পাশাপাশি মালদা ইসকনের উদ্যোগে রথযাত্রার সূচনা। শুক্রবার বিকেল তিনটা নাগাদ মালদা শহরের নেতাজি মোড় এলাকা থেকে রথ যাত্রার সূচনা করা হয়। গত দুই বছর করোনা আবহে বিধি নিষেধ ছিল রথযাত্রাতেও। করোনা আবহাওয়া কাটিয়ে এবছর মালদা শহরের রাস্তায় গড়ালো রথের চাকা।

মালদা ইসকনের উদ্যোগ প্রতিবারের ন্যায় এ বছরও তিনটি রথে জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রা কে নিয়ে রথ মাসির বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। রথযাত্রাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্র সহযোগে নাম সংকীর্তন শুরু করেন ভক্তরা।
হাজার হাজার ভক্তের ভিড় জমে নেতাজি মোড় এলাকায়।

কথিত রয়েছে রথ যাত্রার দিন রথের দড়ি ধরে টানলে পূণ্য অর্জন হয়। মন্দির থেকে জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রার বিগ্রহ নিয়ে আসা হয় নেতাজি মোর এলাকায়। এরপর সেই বিগ্রহ রাখা হয় তিনটি রথে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মালদা রেঞ্জের ডিআইজি অলক রাজোরিয়া, জেলা শাসক নিতিন সিংঘানিয়া, পুলিশ সুপার প্রদীপ কুমার যাদব, ইংরেজবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী , মালদা ইসকনের প্রধান সেবায়েত ব্রজরাজ কানাই দাস সহ অন্যান্য অতিথিরা।

এদিন মহাসড়ম্বরে হাজার হাজার ভক্ত রথের দড়িতে টান দেয়। সারা শহর পরিক্রমা করে রথ পৌঁছায় মালদা শহরের প্রান্তপল্লী ময়দান এলাকায়। সেখানে মাসির বাড়িতে আগামী সাতদিন ধরে থাকবে রথ। সাত দিন ধরে বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে সেখানে। সাত দিন পর আবার উল্টো রথের দিন বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিবে জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রার রথ। রথযাত্রা কে কেন্দ্র করে সারা শহরে মোতায়েন করা হয় বিশাল পুলিশ বাহিনী।

মালদা ইসকনের প্রধান সেবায়েত ব্রজরাজ কানাই দাস বলেন, গত দুই বছর করোনা আবাহয়ের জন্য অনুষ্ঠিত হয়নি রথযাত্রা। এবছর বহু ভক্তের সমাগমে আয়োজন করা হয় রথযাত্রার। নেতাজি মোড় থেকে শহরের বিভিন্ন রাস্তা পরিক্রমা করে জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রার রথ পৌঁছায় মাসির বাড়ি প্রান্তপল্লী এলাকায়। সেখানে ভক্তদের জন্য অন্য ভোগ এবং আগামী সাতদিন ধরে ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।