ট্রেনে বসে সিগারেট, মদ্যপান, ভিক্ষা করা প্রভৃতির শাস্তির বদলে স্পট ফাইনের ব্যবস্হা করেছে ভারতীয় রেল

7
ট্রেনে বসে সিগারেট, মদ্যপান, ভিক্ষা করা প্রভৃতির শাস্তির বদলে স্পট ফাইনের ব্যবস্হা করেছে ভারতীয় রেল

এবার ট্রেনে বসে সিগারেট, মদ্যপান, ভিক্ষা করা, মহিলাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করা এইসব নিয়ে আগে যে শাস্তি হত, এবার সেই সব শাস্তিই তুলে দিচ্ছে ট্রেন। আজ্ঞে হ্যাঁ কথাটা বিশ্বাস না হলেও এটাই সত্যি, এবার আর এই সব নিয়ম থাকছে না ভারতীয় রেল। তার বদলে এবার ভারতীয় রেল স্পট ফাইনের ব্যবস্হা করছে। অর্থাৎ তারা জানিয়েছে এই সব নিয়ম কোনোভাবেই মানে না কেউ, কেউ কিছু পালন করে না। তাই এবার স্পট ফাইনই রাস্তা।

আসলে এই বিষয় নিয়ে আর পি এফের এক কমান্ড্যান্ট জানিয়েছেন, আসলে মানুষের সুবিধার জন্যই এই রেলের বিভিন্ন আইন তৈরী করা হয়েছে, কিন্তু দেখা যাচ্ছে এই সব আইন এখন কিছু শ্রেণীর মানুষের জন্য ব্যবসাতে পরিণত হয়েছে। তারা মোটা টাকা আয় করছে এই আইনকে কেন্দ্র করে। এমন খবর কানে আসছে। যার ফলে কোনো ধরনের অসুবিধায় সমাধান পাচ্ছে না মানুষ।

এবার এই নিয়মে বদল ঘটানো হবে। একেবারে দারুণ ভাবে বদল করা হবে, যাতে স্বার্থ লোভী মানুষেরা কোনোভাবেই স্বার্থ সিদ্ধি করতে না পারে। যেমন রেলের আইনে বেশীর ভাগ শাস্তি জামিন যোগ্য, প্রায় ৬ টি জামিন যোগ্য নয়। রেল চলাকালীন চেন টান দিলে এটা অপরাধ, কিন্তু এটা জামিন যোগ্য অপরাধ। তবে এই আইনকে বদল ঘটানো হবে বলেই জানিয়েছে তারা। এমন সময় বাধ্য হয়েই চেন টানতে হয় মানুষকে। তাই এটা বদল ঘটানো হবে বলেই জানা গেছে।

জানা গেছে মোট ২৬ টি আইন বদলে ফেলা হবে ২৯ টি আইনের মধ্যে। আর সেখানেই নাকি নেওয়া হবে স্পট ফাইন। ১০০ টাকার মতো স্পট ফাইন নেওয়া হবে, এগুলো একপ্রকার হয়রানি তাই ভিক্ষা করলে ২০০০ টাকা জরিমানা, এটি ১৪৪(২) ধারার অপরাধ, সাথে ধূমপান করলে ১৬৭ ধারায় অপরাধ। এইসবের মধ্যে স্পট ফাইন নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হবে, এতে যেমন ঝামেলা মুক্ত হওয়া যাবে সাথে রেলের কিছু আর্থিক লাভ হবে। তবে কিছু অপরাধ একেবারে জামিন অযোগ্য লেবেল ক্রসিং করা, জ্বালানি কোনো জিনিস টেনে আনা, রেল অবরোধ করা, পাঁচটি টিকিটের দালালি করা।