রেলের আয় বাড়াতে প্যাসেঞ্জার ট্রেন গুলিকে মেল এবং এক্সপ্রেস ট্রেনে বদল করার সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় রেল বোর্ড

14
রেলের আয় বাড়াতে প্যাসেঞ্জার ট্রেন গুলিকে মেল এবং এক্সপ্রেস ট্রেনে বদল করার সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় রেল বোর্ড

করোনা মহামারীর জেরে দীর্ঘ সাত মাস ধরে লোকাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ। যাত্রী চাহিদা অনুসারে নির্দিষ্ট কিছু রুটে অবশ্য কিছু স্পেশাল ট্রেন চলাচলের অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্র। তবে, এতে রেলের সেভাবে আয় হচ্ছে না। তাই এবার আয় বাড়াতে নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করলো ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ। ভারতীয় রেল বোর্ডের তরফ থেকে প্যাসেঞ্জার ট্রেন গুলিকে মেল এবং এক্সপ্রেস ট্রেনে পরিণত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

রেল মন্ত্রক সূত্রে খবর, সারা দেশের প্রায় ৫০৮টি প্যাসেঞ্জার ট্রেনকে এভাবেই মেল এবং এক্সপ্রেস ট্রেনে বদলে ফেলা হলো। এই নতুন ট্রেন গুলির টিকিট ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। যার ফলে সাধারণ মানুষের পকেটে কোপ পড়বে, তবে রেলের আয় বাড়বে। সূত্রের খবর, পূর্ব রেলের ১২টি ট্রেন এবং দক্ষিণ-পূর্ব রেলের ৩৬টি ট্রেনকে ইতিমধ্যেই মেল-এক্সপ্রেস ট্রেনে বদলে ফেলা হয়েছে।

ভারতীয় রেল বোর্ডের যুক্তি অনুসারে, দেশের বহু ট্রেন ২০০ কিলোমিটার বেগে যাত্রা করে। সেই ট্রেনগুলিই এবার থেকে মেল-এক্সপ্রেস ট্রেন হিসেবে চিহ্নিত হবে। এই ট্রেন গুলির গতি আরও বৃদ্ধি করা হবে, পাশাপাশি স্টপেজ কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ডিসেম্বর মাসে ট্রেনের নতুন টাইম টেবিল প্রকাশ পেতে চলেছে বলে জানানো হয়েছে। কোন কোন স্টপেজ তুলে দেওয়া হল, তা তখনই জানানো হবে।

সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া-পুরী, হাওড়া-মোকামা, হাওড়া-আদ্রা, হাওড়া-টাটা, সাঁতরাগাছি-পুরী প্যাসেঞ্জার ট্রেন গুলিকে বদলে মেল এক্সপ্রেস ট্রেনে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে যাত্রীদের অভিযোগ, ট্রেনের এই সিদ্ধান্তের ফলে টিকিট ভাড়া প্রায় ৮ থেকে ১০ গুণ বাড়তে চলেছে। পাশাপাশি, স্টপেজে কমে যাওয়াতেও চরম অসুবিধার সম্মুখীন হতে হবে তাদের।