চীনকে প্রতিহত করতে অত্যাধুনিক ব্যাবস্থা গ্রহণ করছে ভারত সরকার

11
চীনকে প্রতিহত করতে অত্যাধুনিক ব্যাবস্থা গ্রহণ করছে ভারত সরকার

গত দুই বছর ধরে লাদাখ সীমান্তে ভারত চীন সীমান্ত বিতর্ক নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে সীমান্ত পরিস্থিতি। এর মধ্যে চীন বেশ কয়েকবার অরুণাচল থেকে উত্তরাখন্ড পর্যন্ত ভারতীয় সেনাবাহিনীর সতর্কতা পরীক্ষার চেষ্টা করে। যদিও চীনের সমস্ত কর্মকাণ্ডের মোকাবিলা করতে তৎপর রয়েছে ভারত বর্ষ। এবার সরকারি আরো স্পেস সংস্থা হিন্দুস্থান অ্যারোনটিক্স লিমিটেডের তরফ থেকে এর একটি স্থায়ী সমাধান আনা হতে চলেছে।

চীনকে প্রতিহত করতে ভারতের তরফ থেকে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা দ্বারা চালিত ড্রোন তৈরি করা হয়েছে। বেশ কয়েক ঘণ্টার জন্য সীমান্তের উপর দিয়ে উড়তে সক্ষম হবে এই আধুনিক ড্রোন। এই প্রসঙ্গে বলা হয়েছে যে এই ড্রোনে রোটারি উইংগস থাকবে এবং সেগুলি ৪০ কেজি পর্যন্ত ওজন তুলতে সক্ষম।

প্রথম পর্যায়ে মোট ৬০টি এরকম অত্যাধুনিক গ্রহণ তৈরি করা হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সংস্থা। সশস্ত্র বাহিনী কেবল প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বহনের জন্য একে ব্যবহার করবে না পাশাপাশি অস্ত্র হিসেবেও একে ব্যবহার করবে। চীন সীমান্তে ভালো করে নজরদারি চালানোর জন্য এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন ড্রোন অত্যন্ত কার্যকরী হবে।

২০২৩ সালের মাঝামাঝি সময় থেকে ড্রোনের পরীক্ষা শুরু হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সংস্থা। ভারতীয় সেনাবাহিনীর অনেক কাজ করতে সক্ষম এই ড্রোন। সেন্সর ছাড়াও এদের ক্ষেপণাস্তসহ অন্যান্য অস্ত্র বসানোর ব্যবস্থা করা যায়। স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন সিস্টেমের সাহায্যে এগুলিকে বহুদূর পর্যন্ত ওড়ানো সম্ভব।