সীমান্তে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করতে আরও ১০টি টানেল বানানোর উদ্যোগ নিল ভারত

7
সীমান্তে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করতে আরও ১০টি টানেল বানানোর উদ্যোগ নিল ভারত

লাদাখের ভারত-চীন সীমান্ত সংঘর্ষের আবহেই সীমান্তে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে ভারত। এই উদ্দেশ্যে লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ১০০ মাইল লম্বা রাস্তা তৈরির জন্য অন্তত ১০টি টানেল বানানোর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ভারত। উল্লেখ্য, ভারতের এই টানেল বানানোর পরিকল্পনা নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই বেশ চাপে আছে দুই প্রতিবেশী রাষ্ট্র চীন এবং পাকিস্তান।

বিশেষ করে ভারতের এই পরিকল্পনার বিরোধিতা করছে চীন। তবে নয়াদিল্লির তরফ থেকে চীনের কোনো বিরোধিতাতেই কর্ণপাত করা হচ্ছে না। গত ৩রা অক্টোবর ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ১০ হাজার ফুট উচ্চতায় বিশ্বের উচ্চতম হাইওয়ে টানেলের উদ্বোধন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত যাতে ভারতীয় সেনা ও সাধারণ মানুষ যানবাহন সমেত যাতায়াত করতে পারেন সেই উদ্দেশ্যেই এই প্রচেষ্টা।

টানেল তৈরীর কাজ এখনো চলছে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে বেশ কিছু জায়গার উচ্চতা ছিলো ১৭ হাজারের ফুটেরও বেশি। ফলে স্বভাবতই টানেল বানাতে গিয়ে বেশ সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছে শ্রমিকদের। তবে শীঘ্রই সমস্ত বাধা কাটিয়ে টানেল তৈরীর কাজ সম্পন্ন করা হবে বলে জানানো হয়েছে। বর্ডার রোড অর্গানাইজেশনের তরফ থেকে জানা গেল, সীমান্তে যোগাযোগ ব্যবস্থা বাড়ানোর জন্য ইতিমধ্যেই অনেক রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে।

তবে তার মধ্যে থেকে এই টানেলটি বিশ্বের সবথেকে উচ্চতম হাইওয়ে টানেল। উল্লেখ্য, গত ৩রা অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যে অটল টানেলের উদ্বোধন করেছেন সেটি হিমাচল প্রদেশের মানালি থেকে লাদাখের লেহ পর্যন্ত সংযোগ স্থাপন করছে। তবে সীমান্তের সঙ্গে সংযোগ আরো মজবুত করে তোলার জন্য এখনও আটটি টানেল বানাতে হবে। তার কাজ এখন জোরকদমে চলছে।