আক্রান্তের নিরিখে আন্তর্জাতিক মহলের কাছেও ক্রমাগত ভয়ের কারণ হয়ে উঠছে ভারত

22
আক্রান্তের নিরিখে আন্তর্জাতিক মহলের কাছেও ক্রমাগত ভয়ের কারণ হয়ে উঠছে ভারত

ভারতের করোনা পরিস্থিতি ক্রমাগত ভয়াবহ হচ্ছে। পৃথিবীর সকল দেশের সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিয়ে মারণ ভাইরাস ভারতবর্ষকে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। বর্তমান সময়ে দৈনিক সংক্রমণের হার ৪ লক্ষের গণ্ডি পেরিয়ে গিয়েছে। ধীরে ধীরে পৃথিবীর সমস্ত দেশের করোনা আক্রান্তের সর্বোচ্চ হারের রেকর্ড ভেঙে দিয়ে আন্তর্জাতিক মহলের কাছেও ক্রমাগত ভয়ের কারণ হয়ে উঠেছে ভারত।

ভারতের এই করোনা পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক মহল আবার দেশের প্রশাসনকেই দায়ী করছে। অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স কিংবা আমেরিকার বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম ইতিপূর্বে মোদি সরকারের অক্ষমতা প্রসঙ্গে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল। সম্প্রতি মেডিক্যাল জার্নাল ‘দ্য ল্যানসেট’ এর তরফ থেকে চরম সমালোচিত হলেন ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ওই জার্নালে নরেন্দ্র মোদির প্রসঙ্গে লেখা হয়েছে, এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে করোনা সংক্রমণ ঠেকানোর বদলে সমালোচনামূলক টুইট মুছতেই বেশি আগ্রহ প্রকাশ করেছেন নরেন্দ্র মোদি। দেশবাসীর প্রতি নরেন্দ্র মোদির এমন কার্যকলাপকে “ক্ষমার অযোগ্য” বলে মন্তব্য করেছে ল্যানসেট। দেশের এমন কঠিন পরিস্থিতিতেও কিভাবে ভারতে ধর্মীয় এবং রাজনৈতিক সমাগমের অনুমোদন দেওয়া হয় তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে ওই জার্নাল।

প্রসঙ্গত কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী তরফ থেকে প্রকাশিত স্বাস্থ্য বুলেটিন অনুসারে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৩ হাজার ৭৩৮ জন এবং একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৯২ জনের। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ২২ লাখ ৯৬ হাজার ৪১৪। এর মধ্যে অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে ৩৭ লাখ ৩৬ হাজার ৬৪৮। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৪৪৪ জন যা আশাপ্রদ বলেই দাবি করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।