ত্রিপুরায় তৃণমূলের তরফে এর মুখ হিসেবে নিযুক্ত হল সুবল ভৌমিক

12
ত্রিপুরায় তৃণমূলের তরফে এর মুখ হিসেবে নিযুক্ত হল সুবল ভৌমিক

২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন এখন তৃণমূলের একমাত্র পাখির চোখ। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে হটিয়ে সারা ভারতবর্ষে আধিপত্য বিস্তারের স্বপ্ন দেখছে সবুজ শিবির। তবে সেই স্বপ্ন পূরণ করার জন্য বিজেপি শিবিরের বিকল্প হিসেবে গ্রাহ্য হতে হবে তৃণমূলকে। এখন থেকেই তার প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। ২৪ এর সম্পূর্ণ ভারতবর্ষে আধিপত্য বিস্তার করতে গেলে এখন থেকেই দেশের অন্যান্য রাজ্যেও তৃণমূলকে প্রথম সারিতে আসতে হবে। ত্রিপুরা থেকেই তাই সেই সফর শুরু করছে রাজ্যের শাসক দল।

ত্রিপুরার আটটি জেলায় আট রাউন্ড সার্ভে করার পরিকল্পনা ছিল প্রশান্ত কিশোরের টিমের। সেখানে রাউন্ড শেষে দেখা গিয়েছে ত্রিপুরার বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের বিপরীতমুখ হিসেবে এ পর্যন্ত কেউ নেই। মুখ্যমন্ত্রীর বিপরীতে তৃণমূলের তরফে এর মুখ হিসেবে তাই সুবল ভৌমিককে তড়িঘড়ি নিযুক্ত করা হয়েছে। কারণ অন্য সকলের থেকে সুবল ভৌমিকের গ্রহণযোগ্যতা ত্রিপুরার মানুষের কাছে কিছুটা বেশি।

এই ইস্যুতে অবশ্য প্রথমে বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মনের নাম উঠে এসেছিল। তবে বারংবার দল ত্যাগ করতে গিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে তার জনপ্রিয়তা কিছুটা হলেও কমেছে। পিকের টিমের বক্তব্য, এই মুহূর্তে সুদীপ রায় বর্মন একজন ভাল রাজনৈতিক নেতা হিসেবে নিজের জায়গা ধরে রেখেছেন। তবে কংগ্রেস থেকে তৃণমূল এবং তৃণমূল থেকে আবার বিজেপিতে যোগদান করার কারণে তার অনুগামীদের মধ্যে একাংশ তার উপর ক্ষিপ্ত রয়েছেন।

পিকের আইপ্যাকের মতে ত্রিপুরায় শাসক দলের পাল্টা হিসেবে বামেদের গ্রহণযোগ্যতা একেবারেই নেই। আবার বিপরীত কোনো বিরোধী শক্তিও নেই, যাদের উপর ত্রিপুরার মানুষজন ভরসা করবেন। এই মুহূর্তে বিপ্লব কুমার দেবের বিরুদ্ধে ময়দানে নামতে গেলে তৃণমূলের তরফ থেকেই তার বিপরীতে যোগ্য প্রার্থী দাঁড় করাতে হবে। সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে চলেছে তৃণমূল। নেপথ্যে রয়েছে পিকের আইপ্যাকের পরামর্শ।