এই দেশে করোনার প্রাণ যায়নি একজনেরও, কায়দা কৌশলে করোনাকে জব্দ

77
এই দেশে করোনার প্রাণ যায়নি একজনেরও, কায়দা কৌশলে করোনাকে জব্দ

গোটা বিশ্ব জুড়ে করোনা আতঙ্ক। হু হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ছে মৃত্যু। ভিয়েতনামে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৮ জন। ওই দেশ দেখে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। ২৬৮ জনের মধ্যে ১৪০ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। কিন্তু কিভাবে করোনার আক্রান্ত হয়ে এখনও মৃত্যু হয়নি ভিয়েতনামে? এমন কিছু গুরুত্তপূর্ণ পদক্ষেপ যা কাজ করেছে ম্যাজিকের মত। শুরু থেকেই করণকে হালকা ভাবে নেয়নি ভিয়েতনাম। সবার আগে মানুষের শরীরের তাপমাত্রার দিকে খেয়াল রেখেছে ভিয়েতনাম। বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের থেকে কাউকে বাদ দেওয়া হয়নি, ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই ভিয়েতনামে মানুষের দেহের তাপমাত্রা অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে স্ক্রিনিং বা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

গত কয়েকমাসের স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য যাচাই করা হয়েছে এবং কেউ যদি মিথ্যে তথ্য দেয় সেইজন্য শাস্তি দেওয়ার নিদান দেওয়া হয়েছে। কারও শরীরের তাপমাত্রা বেশি হলেই সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়া হত। এর পর চিকিৎসকরা রোগীকে ঠিক কী কী করতে হবে তা নির্ধারণ করত। ভিয়েতনামের যে কোনও শহর বা প্রদেশের বিল্ডিংয়ে ঢুকতে গেলে থার্মাল স্ক্রিনিং করাতে হবে এবং বেশ কয়েকটি পরীক্ষা হবে। প্রতিটি শহরে করোনা টেস্ট করার ব্যবস্থা করা হয়েছে এবং সবাইকে এই পরীক্ষা করা বাধ্যতামূলক।

কোনও জায়গায় যদি কারও শরীরে করোনার জীবাণু ধরা পড়ে, সেক্ষেত্রে গোটা এলাকা লকডাউন করা হচ্ছে। ভিয়েতনাম তিনটি করোনা টেস্ট কিট আবিষ্কার করেছে, ২৫ ডলার দিয়ে কিনে যে কেউ সেই কিট দিয়ে টেস্ট করাতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জনগণের সঙ্গে সরকারের যোগাযোগ ভিয়েতনামের করোনার বিরুদ্ধে জয়ী হওয়ার আসল কারণ। জানুয়ারি থেকেই মানুষকে সচেতন করতে শুরু করেছিল সেই দেশের সরকার।