বাজারে যাওয়ার নাম করে স্বামী-সন্তানকে ছেড়ে বেপাত্তা হয়ে গেলো এক গৃহ বধূ

14
বাজারে যাওয়ার নাম করে স্বামী-সন্তানকে ছেড়ে বেপাত্তা হয়ে গেলো এক গৃহ বধূ

দীর্ঘ ১৫ বছরের সংসার, আর সেই সংসারে স্বামী ও সন্তানকে ছেড়ে বাজারে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বেপাত্তা হয়ে গেলো বধূ। আর সেই বউকে খুঁজতেই স্যোশাল মিডিয়ায় বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির রিষরায়। এই ঘটনা সামনে আসতেই দারুণ চাঞ্চল্য এলাকায়, সেই মহিলার রয়েছে ১৩ বছরের একটি ছেলে ও ৬ বছরের মেয়ে। স্বামী একটি ট্রাভেল এজেন্সি চালায়, স্বাভাবিকভাবেই করোনার কারণে দারুণ ভাটা পড়েছিল ব্যবসায়। কিন্তু অভাবের কারণে কোনো অশান্তি ছিল না সংসারে।

সব ভালোই চলছিল, কিন্তু হঠাত করে একদিন সকালবেলা বাজারে যাওয়ার নাম করে, একেবারে বেপাত্তা হয়ে যায় সেই মহিলা। বহু সময় পার হয়ে গেলেও কোনও খবর পাওয়া যায় না তার। এমনকি বাড়িতেও ফিরে আস না সে। তার পরেই শুরু হয়ে যায় চারদিকে খোজাখুজি। কিন্তু লাভের লাভ তেমন কিছুই হয় না। মোবাইলে ফোন করেও পাওয়া যায় না তাকে, কারণ মোবাইল সুইচ অফ করে নেয় সেই বধূ। কোনও কিছুতেই কিছু না হওয়ায়, শেষ পর্যন্ত পুলিশের দ্বারস্থ হয় স্বামী ধর্মেন্দ্র। পুলিশকে তার স্ত্রীকে খুজে দেওয়ার আর্জি জানায়। এমনকি তিনি স্যোশাল মিডিয়ায় পর্যন্ত পোস্ট করে বাড়িতে ফিরে আসার।

স্বামী ধর্মেন্দ্র জানায়, বাচ্চা মেয়েটা মায়ের জন্য সারাদিন কান্না করছে। গত ১৫ বছরের সম্পর্ক, কোনোদিন ওর সাথে আমার অশান্তি হয় নি। হঠাত করে এমন সিদ্ধান্ত ভাবতেই পারি না। যদি ও ঘরে ফিরে আসতে চায় ওকে আমি ফিরিয়ে নেব। সন্তানদের জন্য অন্তত সে ফিরে আসুক। আমি লক্ষ্য করেছি অনেক রাত পর্যন্ত সে চ্যাট করত। আমার মনে হয় সেই ব্যাক্তির ফাদে পা দিয়েই কবিতা ঘর ছেড়েছে।।