যাত্রী বিক্ষোভের মুখে পড়ে এবার সারা রাজ্য জুড়ে লোকাল ট্রেন চালু করার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার

3
যাত্রী বিক্ষোভের মুখে পড়ে এবার সারা রাজ্য জুড়ে লোকাল ট্রেন চালু করার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার

কলকাতার পর এবার রাজ্যের অন্যান্য অঞ্চলগুলিতেও চলবে লোকাল ট্রেন। হাওড়া শিয়ালদা স্টেশনের পর এবার সারা রাজ্য জুড়েই ধীরে ধীরে লোকাল ট্রেন পরিষেবা পূর্বাবস্থায় ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ গ্রহণ করলো রাজ্য সরকার। যাত্রীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েই মূলত এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে রাজ্য। রাজ্যের নন-সাবার্বান বিভাগেও যাতে শীঘ্রই ট্রেন চলাচল শুরু করা যায় সেই উদ্দেশ্যে নবান্নের তরফ থেকে সম্প্রতি রেল দপ্তরের কাছে চিঠি গেছে।

উল্লেখ্য, যাত্রীদের দীর্ঘ বিক্ষোভের মুখে পড়ে গত ১১ই নভেম্বর থেকে হাওড়া, শিয়ালদা স্টেশন থেকে সীমিত সংখ্যক রেল চলাচলের অনুমোদন দেয় রাজ্য সরকার। এর ফলে যাত্রী চাহিদা কিছুটা মিটলেও সম্পূর্ণভাবে নিরসন করা সম্ভব হয়নি। বিশেষত রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছানোর জন্য ট্রেন চলাচলের অনুমতি না মেলায় যাত্রীদের একটি বিরাট সংখ্যা আবারো রাজ্য সরকারের কাছে নিজেদের বিক্ষোভ জানান।

বীরভূম, বর্ধমান, মুর্শিদাবাদের একটি বড় অংশে এখনো ট্রেন চলাচল বন্ধ। বর্ধমান-সাহেবগঞ্জ লুপ লাইন, আজিমগঞ্জ-রামপুরহাট, কাটোয়া-আজিমগঞ্জের মতো একাধিক শাখায় এখনো ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় বহু নিত্যযাত্রী ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি প্রশাসনিক কর্মকর্তারাও রাজ্য সরকারের কাছে ট্রেন চলাচলের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার জন্য আবেদন জানিয়েছেন।

বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরী, হাঁসন কেন্দ্রের বিধায়ক মিল্টন রশিদসহ আরও অনেকে সায়ন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে নিজেদের দাবি জানিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে এবার রেল দপ্তরের কাছে বিষয়টি বিবেচনা করার জন্য চিঠি পাঠালো রাজ্য সরকার। তবে রেলের তরফ থেকে অবশ্য এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি। তাই নন-আর্বান বিভাগগুলিতে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করার বিষয়টি খতিয়ে দেখছে রেল।