সৌন্দর্যের দিক থেকে ঐশ্বর্য রাইয়ের সাথে সমানে সমানে টেক্কা দেন তার ভাইয়ের বৌ! দেখে নিন

13
সৌন্দর্যের দিক থেকে ঐশ্বর্য রাইয়ের সাথে সমানে সমানে টেক্কা দেন তার ভাইয়ের বৌ! দেখে নিন

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তথা বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বর্য রাই। অন্যদিকে বলিউডের বিগবি অমিতাভ বচ্চন পুত্র অভিষেক বচ্চন-এর স্ত্রী। বিশ্বসুন্দরী হিসেবে আজও এক ডাকে সকলেই ঐশ্বর্য রাইকে চেনে। তিনি যেন সত্যিই রূপবতী। তাঁর রূপের জাদুতে আট থেকে আশি সবাই কাবু। একজন প্রতিভাবান অভিনেত্রী তো বটেই, পাশাপাশি তিনি একজন নিখুঁত কন্যা, বিচক্ষণ পুত্রবধূ, স্নেহময়ী স্ত্রী এবং তার কন্যার সেরা মা। ঐশ্বর্য প্রতিটি সম্পর্ক খুব ভালোভাবে পালনে পারদর্শী।

ঐশ্বর্য রাই বচ্চন তো বিশ্বসুন্দরী। তবে জানেন কি যে তার ভাইয়ের বৌ সৌন্দর্যের দিক থেকে কোনও বলিউড অভিনেত্রীর থেকে কম নয়। বলা ভালো তিনি প্রাক্তন মিস ওয়ার্ল্ড তথা তাঁর ননদিনী ঐশ্বর্য রাইয়ের সাথে সমানে সমানে টেক্কা দেন। ঐশ্বর্য-র ভাইয়ের বৌয়ের নাম শ্রীমা রাই। তিনি নিজেও একজন বিউটি কুইন। মিস ইন্ডিয়া গ্লোব 2009-এর মডেল হিসেবে পার্টিসিপেট করেছিলেন তিনি, শুধু তাই নয়, বিজয়ীও হয়েছিলেন।

ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের ভাই আদিত্য রাইয়ের স্ত্রী হলেন বিউটি কুইন শ্রীমা। শ্রীমা রাই সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ অ্যাক্টিভ। প্রায়শই নানা ধরণের ছবি-ভিডিও তিনি শেয়ার করেন নেট দুনিয়ায়। বর্তমানে তিনি তার নিজস্ব ফ্যাশন এবং লাইফস্টাইল ব্লগ চালান। বিয়ের আগে তিনি অবশ্য একজন ব্যাংকার ছিলেন। শ্রীমার জন্ম ভারতের ম্যাঙ্গালোরে। আর বড় হয়ে ওঠেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়া শহরে। তারপর ঐশ্বর্যের ভাই আদিত্য রাই এর সাথে তার বিয়ে হয় এবং তিনি মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় থাকতে শুরু করেন। তাদের দুই ছেলে শিবংশ রাই ও বিহান রাই।

২০১৯ সালে একটি দীর্ঘ ইনস্টাগ্রাম পোস্টের মাধ্যমে শ্রীমা রাই তার প্রেমের গল্প নেটিজেনদের সাথে শেয়ার করেন। সেখানে তিনি লেখেন, “যখন আমার ২০ বছর বয়স, তখন আমি ভারতে এসেছিলাম। একটি ডিনার পার্টিতে আদিত্যের সাথে আমার প্রথম দেখা। আর প্রথম দেখাতেই আমাদের দুজন দুজনকে ভালো লেগে যায়। তারপর আমাদের মধ্যে পরিচয় ঘটে। খুব কম দিনের মধ্যেই আমরা একে অপরের অনেকটা কাছাকাছি চলে আসি আর ঠিক ১ বছর পর আমরা বিয়ের সিদ্ধান্ত নিই।”

২০১০ সালে এক সাক্ষাৎকারে শ্রীমা তাঁর ননদ ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের সাথে তাঁর সম্পর্ক কেমন সে বিষয়ে মুখ খোলেন। শ্রীমার কথা থেকে স্পষ্ট হয় যে ননদ বৌদির খুব ভাব। তিনি জানান, “আমার কাছে অ্যাশ কোনো সুপারস্টার নয়, ও প্রথমে আমার বোন। যদিও আমার সাথে অ্যাশ এবং অভিষেকের খুব কমই দেখা হয় কারণ যখন সে আসে তখন আমি সাধারণত কাজের সূত্রে বাইরে থাকি। কিন্তু দেখা বেশি না হলেও ও সবসময় আমার মনের মধ্যে থাকে।”