লাহোর জেলে তাকে দেওয়া হতো ইদুর খাওয়া খাবার ও নষ্ট হওয়া ওষুধ, বিস্ফোরক নওয়াজ কন্যা মরিয়ম

6
লাহোর জেলে তাকে দেওয়া হতো ইদুর খাওয়া খাবার ও নষ্ট হওয়া ওষুধ, বিস্ফোরক নওয়াজ কন্যা মরিয়ম

মরিয়ম নওয়াজ হলেন পাকিস্তানের মুসলিম লীগ নওয়াজের সহ-সভাপতি এবং পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের কন্যা। মরিয়ম নওয়াজ এবার মুখ খুললেন পাকিস্তানের সরকার ইমরান খানের বিরুদ্ধে। এইবার গুরুতর অভিযোগ তুলে গড়ায় দাঁড় করালেন ইমরান খানের সরকারকে।

মরিয়ম নওয়াজ ইমরান খানের সরকারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে অভিযোগ করলেন, যখন তিনি লাহোরের জেলেতে ছিলেন সেই সময় তাকে দেওয়া হতো ইদুরে মুখ দেওয়া খাবার এবং নষ্ট হয়ে যাওয়া ওষুধ।

তিনি এই সমস্ত কিছু বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমকে জানান। যদিও এই সমস্ত অভিযোগ শোনার পরে ইমরান খানের সরকার সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন। মিথ্যা বলে দাবি করে তিনি বলেছেন যে,” নয়তো ওই দিনগুলি ওনার বাড়ি ছিল অথবা তিনি পুরোপুরি মিথ্যা বলছেন”।

এই সমস্ত ঘটনা জানা গেছে, পাকিস্তানের জিও নিউজ থেকে তারা বলেন যে তাদের কাছে মরিয়ম আনুষ্ঠানিকভাবে একটি অনুষ্ঠান করতে এসেছিলেন এবং যেখানে তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি এই অভিযোগগুলো তোলেন।

জানা যায় যে, মরিয়ম অভিযোগ করেছে যে সমস্ত ওষুধ এবং খাবারগুলো তাকে দেওয়া হতো সেগুলি একবার এই ব্যবহার যোগ্য ছিল না কিন্তু এই এর প্রতিবাদ করতে গেলে তাকে ওই পচা এবং নষ্ট হয়ে যাওয়া ওষুধ খাওয়ার জন্য বাধ্য করা হতো।

মরিয়ম আরও অভিযোগ করেছিলেন যে শুধুমাত্র খাওয়া ওষুধ এগুলো বাদে ও তার ওপর সম্পূর্ণভাবে টর্চার করা হত। তার ঘরে এবং তার শৌচাগারের ক্যামেরা লাগানো ছিল।

একটি পাচার মামলা কাণ্ডের জন্য মরে নওয়াজকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

যদিও এই সমস্ত অভিযোগকে সম্পূর্ণ ভাবে অস্বীকার করেছেন পাকিস্তানের ইমরান সরকার। ব্যারিস্টার মির্জা আকবর তিনি বলেন যে, “মরিয়মের জন্য বাড়ির খাবার আনা হতো, তাই তিনি যে অভিযোগ করেছেন যে ইদুরের খাবার দেওয়া হতো সেটা তার বাড়ি থেকে আসতো”।

তিনি আরও কটাক্ষ করে বলেন যে, ইঁদুর গুলো অনেক ভাল ছিল নয়তো এত খাবার পেয়েও মরিয়মের জন্য খাবার রেখে দিত।