ছত্তিশগড়ে মাওবাদীদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে শহীদ ২২ জন সেনা জওয়ান

10
ছত্তিশগড়ে মাওবাদীদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে শহীদ ২২ জন সেনা জওয়ান

শনিবার ছত্তিশগড়ের বিজাপুর এলাকায় মাওবাদীদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলির লড়াইয়ে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। এদিন রাতে বিজাপুরের তেররামের জঙ্গলে মাওবাদী এনকাউন্টারে অংশ নেয় নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনী। উভয়পক্ষের গুলির লড়াইয়ের কারণে মৃতের সংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। বিশিষ্ট সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, উভয়পক্ষের গুলির লড়াইয়ের দরুণ এ পর্যন্ত ২২ জন সেনা জওয়ান শহীদ হয়েছেন।

বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, শনিবার বিজাপুর ও সুকমা জেলায় মাওবাদী এনকাউন্টার নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর সদস্যরা। নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর তরফের যে সদস্যরা এই এনকাউন্টারে অংশগ্রহণ করেছিলেন শনিবার রাত থেকেই তাদের আর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। উভয়পক্ষের গুলির লড়াইয়ে শনিবার রাতেই পাঁচজন জওয়ানের মৃত্যু হয় বলে জানানো হয়েছে।

এছাড়াও জখম হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন জওয়ান। ছত্রিশগড়ের ডিজিপি ডিএম অবস্থি জানালেন, সিআরপিএফের কোবরা বাহিনী, ডিআরজি এবং এসটিএফের সদস্যরা ওই এলাকায় মাওবাদীদের গতিবিধির খবর পেয়ে যৌথভাবে এনকাউন্টারে নামেন। পুলিশ সূত্রে খবর, যৌথবাহিনীর সদস্যরা যখন মাওবাদীদের সন্ধান চালাচ্ছিলেন সেই মুহূর্তেই তাদের উপর আক্রমণ করে বসে মাওবাদীরা।

গুলির লড়াইয়ে ঘটনাস্থলেই পাঁচজন প্রাণ হারান। প্রসঙ্গত ইতিপূর্বে গত ২৩শে মার্চ নারায়ণপুর জেলায় নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর বাসের উপর আইডি হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। সেই আক্রমণের কারণেও পাঁচ ডিআরজি জওয়ান প্রাণ হারান বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। সাম্প্রতিক ঘটনার জেরে ইতিমধ্যেই ২২ জন জওয়ানের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।