মৃত্যুর ঝুঁকি উপেক্ষা করেই গোল্ডেন প্রজাতির একটি কোবরা উদ্ধার করলেন এই ব্যাক্তি

7
মৃত্যুর ঝুঁকি উপেক্ষা করেই গোল্ডেন প্রজাতির একটি কোবরা উদ্ধার করলেন এই ব্যাক্তি

সাপ মানেই এককথায় বাপরে বাপ! তাই সাপের সঙ্গে ছেলেখেলা নৈব নৈব চ। সাপকে ভয় পায় না এমন মানুষের সংখ্যা খুবই কম। সাপ দেখলে আট থেকে আশি সকলেই ভয় পায়। কারণ প্রতিবছর বর্ষাকালে সাপের দংশনের ফলে মৃত্যু হয় বহু মানুষের। তাই সাধারণ মানুষ এই প্রাণীটি থেকে বেশ কিছুটা দূরত্ব বজায় রেখেই চলেন।

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে নানা প্রজাতির নানা পশুপাখির দেখা পাওয়া যায়, তাদের কথা জানতে পারা যায়। নেট দুনিয়ার মাধ্যমেই জানা গেছে সারা পৃথিবীতে রয়েছে প্রায় কয়েকশো প্রজাতির সাপ। সাধারণ মানুষের এই সব প্রজাতি সম্বন্ধে জ্ঞান না থাকলেও নেটদুনিয়ার মাধ্যমে আজকাল দিনে অনেক তথ্য জানতে পারা যায়। শুধু তাই নয়, সাপেদের নানান কর্মকান্ডের ভিডিও মাঝেমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হয়।

গোটা বিশ্বে রয়েছে প্রায় ২,৯০০ টি প্রজাতির সাপ পাওয়া যায়। কিন্তু অনেকেই জানেন না তাঁদের মধ্যে বিষ বিহীন সাপের সংখ্যাই বেশি। বিষধর সাপের বিষ একদিকে যেমন নিমেষের মধ্যেই একটি প্রাণীকে মেরে ফেলে তেমনই সাপের বিষ থেকে তৈরী হয় বিভিন্ন ধরনের মাদক ও প্রাণদায়ী ওষুধ। সাধারণত গোখরো, রাসেল, ভাইটার ও পিট ভাইপার প্রজাতির সাপ থেকে ভারতে সাপের বিষ নিষ্কাশন করা হয়, আর তারপর প্রতিবছর কোটি কোটি টাকার সাপের বিষ পাচার হয় দেশের বাইরে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় সাপ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে এক ব্যাক্তি একটি বাড়িতে সাপ ধরতে গিয়েছেন। আর সাপ ধরার সেই দৃশ্য দেখবেন বলে সেখানে হাজির হয়েছেন অসংখ্য মানুষ। উদ্ধার হওয়া সাপটি হল একটি বিষধর গোল্ডেন কোবরা প্রজাতির সাপ। নিউরোটক্সিন নামক বিষ পাওয়া যায় এই প্রজাতির সাপ থেকে।

ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, গোল্ডেন প্রজাতির একটি কোবরা একটি পরিত্যক্ত জায়গায় কয়েকটি বস্তার আড়ালে লুকিয়ে রয়েছে। যেটিকে দেখে বাড়ির সদস্যরা আতঙ্কে তটস্থ হয়ে আছে। তাই খুব তাড়াতাড়ি সাপ ধরা ব্যক্তিকে সেই খবর জানানো হয়। এরপর ওই ব্যক্তি সাপটিকে একটি স্টিলের রড দিয়ে ধরার চেষ্টা করলে সাপটি ওই ব্যক্তির দিকে তেড়ে আসে। দিকে তেড়ে আসে। দিকে তেড়ে আসে। ওই ব্যক্তিটি অবশ্য কিছুমাত্র ভয় পান না। তাই সাপটিকে ধরতে তিনি এগিয়ে যান। এরপর ওই ব্যক্তির উপর প্রচন্ড রাগে সাপটি গর্জাতে থাকে। তবে ওই ব্যক্তিটি মৃত্যুর ঝুঁকি উপেক্ষা করে সবশেষে সাপটিকে ধরে ফেলেন এবং একটি প্যাকেটের মধ্যে ভরে নেন।