বিয়ে বাড়ি আসতে হলে অন্তত পাঁচ হাজার টাকার গিফট আনতে হবে! আজব কাণ্ড বর-কনের

17
বিয়ে বাড়ি আসতে হলে অন্তত পাঁচ হাজার টাকার গিফট আনতে হবে! আজব কাণ্ড বর-কনের

আমাদের বাঙালি দম্পতির যখন কাউকে নিমন্ত্রন্ন করতে যায়, তখন কার্ডে লেখা থাকে দয়া করে কিছু আনবেন না। যদিও এটা একটি ভদ্রতা সূচক লেখা। তবে আপনাকে যদি নেমন্তন্ন করতে এসে কেউ বলে আসতে হলে অন্তত পাঁচ হাজার টাকার গিফট আনতে হবে। তখন বোধহয় আর যেতে ইচ্ছা করবে না তাই না? এমন একটি অবিশ্বাস্য কান্ড ঘটিয়ে ফেলেছেন এক মার্কিন দম্পতি। তাদের সেই ইমেল টুইটারে হয়েছে ভাইরাল।

যদিও এই ইমেইল তারা নিজেরা করেননি। তারা তাদের বিয়ের সমস্ত দায়িত্ব দিয়ে দিয়েছিলেন একজন হেডিং প্ল্যানারকে। তারাই এই কাজ করেছেন। যদিও এই কাজ হবু দম্পতির সম্মতি ছাড়া যে হয়নি তা বলাই বাহুল্য। তবে শুধু উপহার নয়, সাথে রয়েছে আরও কিছু নিয়মাবলী। বিয়েতে আসতে হলে বেশ কিছু ড্রেসকোড পড়ে আসতে হবে আপনাকে।

ডেকারেশন অথবা থিমের সঙ্গে ম্যাচ করে কোন না কোনো রংয়ের পোশাক পড়ে আসতে অনুরোধ করা হয়েছে অতিথিদের। তবে সাদা অথবা আইভরি রং যাতে কেউ না পড়ে আসেন, তার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে অতিথিদের। শুধুমাত্র পোশাক নয়, চুলের ক্ষেত্রে রয়েছে নানান রকম নিয়মাবলী। শুধুমাত্র পনিটেইল অথবা সাধারণ বব হেয়ার স্টাইল করতে হবে আপনাকে।

রয়েছে সময় উল্লেখ ও, বিয়ের অনুষ্ঠান শুরু হবার ঠিক পাঁচ ঘন্টা আগেই পৌঁছে যাবার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। বিয়ে বাড়িতে পৌঁছে ছবি তুলে পোস্ট করা অথবা ফেসবুকে ট্যাগ করা চলবে না। সবথেকে অদ্ভুত বিষয় হলো, বিয়ে বাড়িতে গিয়ে নববধূর সঙ্গে কথা বলতে বারণ করা হয়েছে। কোন প্রশ্ন থাকলে সরাসরি ফোন করতে বারণ করা হয়েছে এই ই-মেইলে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে এই আজব গাইডলাইন ভাইরাল হয়েছে দুরন্ত গতিতে। অনেকেই এই নিমন্ত্রণ পত্র কে অপমান জনক বলে গণ্য করেছেন। এমন বাড়িতে না যাওয়াই উচিত বলে অনেকে মনে করেছেন। আবার কিছু কিছু মানুষের মত অনুযায়ী, সত্যি ছবি তুলে পোস্ট করা অনুচিত। হবু স্বামী স্ত্রীর কিছু প্রাইভেসি থাকতে পারে। ভারত এরকম একটি নিমন্ত্রণ করলে আপনি কি যেতেন, নাকি নিমন্ত্রণ ফিরিয়ে দিতেন, জানাতে ভুলবেন না কমেন্ট বক্সে।

ই-মেলের স্ক্রিনশট। ছবি : টুইটার