ঠিক মতো ঘুম না হলে স্বাস্থ্যের কি কি ক্ষতি হয়? জানুন

14
ঠিক মতো ঘুম না হলে স্বাস্থ্যের কি কি ক্ষতি হয়? জানুন

প্রত্যেকটি মানুষের জন্যই ঘুম অত্যন্ত প্রয়োজন। একজন মানুষের প্রত্যেকদিন ৮ ঘন্টা ঘুমানো প্রয়োজন, কারণ এই সময়টাতেই মানুষের শরীর বিশ্রাম নেয়। যারা কম ঘুমান তাদের শরীরে বাসা বাঁধে নান রোগ। কম ঘুমানোর কারণেও কিন্তু মানুষের মেজাজ বিগড়ে যায়, এমনকি মানসিক নানা সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

একটা মানুষকে বেঁচে থাকার জন্য যেমন খাবার খেতে হবে, তেমনি ঘুমাতেও হবে। কারণ একটানা যদি অনেকদিন না ঘুমোনো যায় তবে যে কেউ মারা যেতে পারে। অন্যদিকে ঘুম না হলে স্বাস্থ্যেরও অবনতি ঘটতে পারে। এই প্রতিবেদনে আমরা বলবো যে একজন মানুষ কতদিন না ঘুমালে মারা যেতে পারে।

একজন মানুষ যদি টানা ১১ দিন না ঘুমায়, তবে তার মৃত্যু অনিবার্য। একজন মানুষ তার জীবনের বেশিরভাগ সময়ই ঘুমিয়ে কাটান। একটা গবেষণায় দেখা গেছে যে, একজন ব্যক্তি যদি সাত ঘন্টা না ঘুমান তাহলে তার শরীরে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে, যেমন তার ঠান্ডা লাগার সম্ভাবনা বেশি দেখা যায়।

এছাড়াও ঘ্রাণ শক্তি কমে যায়, ফলে ঘুমানোর সময় কোন গন্ধ নাকে পাওয়া যায় না। এবার আসুন জেনেনি সঠিক সময় পর্যন্ত না ঘুমালে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।

১.সঠিক পরিমাণ যদি একজন মানুষ না ঘুমায়, তাহলে তার চেহারার মধ্যে বদল ঘটতে থাকে, অনেক সময় চোখের নিচে কালি পড়ে যায়, চোখ লাল হয়ে যায় এবং চোখ ফুলে যায়।

২, কিডনি, হূদরোগ ,উচ্চরক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং স্ট্রোকের মত মারাত্মক রোগের সম্মুখীন হতে হয়।

৩. যদি তাড়াতাড়ি ঘুমানো যায় এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমিয়ে নেওয়া যায়, তবে সেক্ষেত্রে কোন ক্লান্তি থাকে না দিনের বেলায়।

একটি সমীক্ষা করে দেখা গেছে যে, অল্প সময়ের জন্য যারা ঘুমায় তারা বেশি দিন পর্যন্ত বাঁচেন না, প্রত্যেকদিন যদি যথেষ্ট পরিমাণে ঘুমানো যায় তবে আয়ু বাড়ে।