এই গোপন খবর দিতে পারলেই মিলবে চাকরিঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

37
এই গোপন খবর দিতে পারলেই মিলবে চাকরিঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

মমতা সরকারের আমলে কর্মসংস্থান পশ্চিমবঙ্গে একটি অন্যতম ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে। রাজ্য সরকারের চাকরির ক্ষেত্রে বিভিন্ন জায়গায় দুর্নীতি, নিয়োগে কারচুপি, টাকার বিনিময় নিয়োগ সংক্রান্ত একাধিক অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল সরকারের আমলে। রাজ্যের যুবসম্প্রদায় যেখানে প্রতিনিয়ত বেকারত্বের জ্বালা ভোগ করছেন সেখানে ভোটের মুখে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক অভিনব চাকরির প্রতিশ্রুতি দিলেন রাজ্যবাসীকে।

একুশের বিধানসভা নির্বাচন যাতে রাজ্যে শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয় তার জন্য কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরেই সমস্ত দায়িত্ব অর্পণ করেছে নির্বাচন কমিশন। কমিশনের সাফ নির্দেশ, রাজ্য পুলিশের কর্মীরা ভোটকেন্দ্রের ত্রিসীমানায় থাকতে পারবেন না। ভোট কারচুপি এড়াতে এবং রাজ্যের নির্বাচনে রাজ্য পুলিশের হস্তক্ষেপ কমাতেই এই ব্যবস্থা।

তবে এই ব্যবস্থা পছন্দ নয় তৃণমূল সরকারের। তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ, কেন্দ্রীয় বাহিনীকে দিয়ে এলাকায় এলাকায় গোপনে টাকা বিলি করা হচ্ছে। নাকা চেকিংয়ের কোনো বন্দোবস্ত করা হয়নি। এ রকমই একাধিক অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই এবার রাজ্যবাসীর শরণাপন্ন খোদ মুখ্যমন্ত্রী।

সম্প্রতি একটি জনসভায় দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, এই ধরনের কোন রূপ কুকাজ যদি হাতেনাতে ধরে ফেলেন কেউ তাহলে তাকে পুরস্কৃত করবে রাজ্য। পুরস্কার হিসেবে তিনি পেয়ে যেতে পারেন চাকরি! যদি দেখা যায় রাতের অন্ধকারে কিংবা দিনের বেলায় গোপনে কেন্দ্রীয় বাহিনী টাকা বিলাচ্ছে, তাহলে যিনি সেই খবর দেবেন তাকে চাকরি দেবে রাজ্য সরকার!