এই একটি মাত্র জিনিস থাকলেই ভুটান ভ্রমনে আর কোনো বাধা নেই

13
এই একটি মাত্র জিনিস থাকলেই ভুটান ভ্রমনে আর কোনো বাধা নেই

ভারতের প্রতিবেশী দেশ ভুটানে অনেকেই ভ্রমণ করতে ভালোবাসেন। যে সমস্ত পর্যটকরা এখনো পর্যন্ত ভুটান ভ্রমণ করেনি তাদের জন্য চলে এলো মস্ত বড় একটি সুখবর। মহামারীর পর থেকে ভারতবর্ষের বাইরে যেতে গেলে আগে কোয়ারেন্টানে থাকতে হতো। কিন্তু এবার ভুটানে প্রবেশ করার জন্য আর থাকতে হবে না আলাদা কোন ঘরে। কেবলমাত্র ডবল ডোজ ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট থাকলেই নির্দ্বিধায় ভ্রমন করা যাবে ভুটানে।

সম্প্রতি ভুটান সরকারের তরফ থেকে এমন একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে যেখানে বলা হয়েছে, দেশে করোনা সংক্রমণ একেবারে কমে যাওয়ার ফলে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। তবে ভুটানের প্রবেশ করার আগে কারো যদি রিপোর্ট পজিটিভ হয় সেক্ষেত্রে থাকতে হবে সেই ব্যক্তিকে এমন কথাও বলা হয়েছে ভুটান সরকারের তরফ থেকে।

ভুটান সরকারের তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকেই দেশকে রক্ষা করার জন্য পর্যটক প্রবেশ দ্বারে করা নিয়ম-বিধি আরোপ করা হয়েছিল। বর্তমানে ভুটানে করোনা সংক্রমণ একেবারেই নেই বললে চলে। পজিটিভিটি রেট কমিয়ে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১.৪৬ শতাংশ। এছাড়া মৃত্যু এবং হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা বর্তমানে একেবারেই নেই।

৪ জুলাই থেকে টেস্ট অ্যান্ড গো পদ্ধতি প্রত্যাহার করা হলেও ভুটানে প্রবেশের অন্তত 24 ঘণ্টা আগে রিপোর্ট নেগেটিভ আসতে হবে। রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পাশাপাশি ভ্যাকসিনেশন সার্টিফিকেট থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য। কারোর কাছে যদি সার্টিফিকেট না থাকে সেক্ষেত্রে সঙ্গে সঙ্গে পরীক্ষা করিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে ভুটান প্রবেশ দ্বারে।

ভুটানের প্রধান প্রবেশদ্বার যেমন জেলেপু, পাড়া, ফুয়েন্ত শোলিং, সহ অন্যান্য প্রবেশপথে করনা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। রিপোর্ট যদি পজিটিভ আসে সে ক্ষেত্রে অন্তত পাঁচ দিন আলাদা থাকতে হবে ওই ব্যক্তিকে। দেশকে করোনা মুক্ত করে রাখার জন্য এমন একটি অভিনব পদ্ধতি অবলম্বন করেছেন ভুটান সরকার এবং সকলের যৌথ সহায়তায় ভুটানকে করনা মুক্ত করার জন্য আবেদন জানিয়েছেন ভুটান সরকার।