দাবী মেনে না নিলে ছয় মাস দিল্লির রাস্তাতেই অবস্থান করবেন জানালো কৃষক সংগঠন

5
দাবী মেনে না নিলে ছয় মাস দিল্লির রাস্তাতেই অবস্থান করবেন জানালো কৃষক সংগঠন

কেন্দ্রের প্রস্তাবিত নতুন কৃষি আইন ২০২০ নিয়ে বিক্ষোভরত সারা দেশের বিভিন্ন প্রান্তের কৃষকরা দিল্লির রাস্তা থেকে কোনোমতেই সরতে রাজি নন। প্রয়োজনে তারা ছয় মাস দিল্লির রাস্তাতেই অবস্থান করতে রাজি আছেন, কিন্তু তাদের বিক্ষোভ প্রদর্শন থামবে না। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অমিত শাহের শর্তও মানতে রাজি নন তারা। কৃষক সংগঠনের নেতৃত্বে তরফ থেকে সরাসরি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, শর্তসাপেক্ষে আলোচনা, নৈব নৈব চ।

উল্লেখ্য, বিগত কয়েকদিন ধরেই পাঞ্জাব, হরিয়ানা, মহারাষ্ট্রসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কেন্দ্রীয় কৃষি আইন বিরোধী কৃষকেরা দিল্লির রাস্তায় অবস্থান-বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই মুহূর্তে রাজধানী শহরের কৃষক বিক্ষোভের চিত্র ঘুরপাক খাচ্ছে। কৃষক বিক্ষোভের আঁচ টের পেয়ে কৃষক সংগঠনের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আগ্রহ প্রকাশ করছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু কেন্দ্রের শর্ত, এই বিক্ষোভ দিল্লির বুরারি মাঠে সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গতকাল কৃষকদের উদ্দেশ্যে আবেদন করে বলেন, দিল্লির বুরারি মাঠে কৃষকদের থাকার উপযোগী ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে জল, শৌচাগার এবং স্বাস্থ্য সুরক্ষার যাবতীয় সরঞ্জামের ব্যবস্থা রয়েছে। কৃষকেরা সেখানে পৌঁছলে কেন্দ্রীয় সরকার তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি আছেন। কিন্তু দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত ৩০টি কৃষক সংগঠন অমিত শাহের এই প্রস্তাব মেনে নিতে রাজি নন।

কৃষক সংগঠনের নেতৃত্বের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কেন্দ্রে শর্ত মেনে কৃষকেরা বৈঠকে বসবেন না। বৈঠক হবে নিঃশর্তে। বিশেষত, কেন্দ্রের নির্দেশিত বিক্ষোভস্থলে পৌঁছতে তারা রাজি নন। পাঞ্জাব থেকে আগত এক কৃষক জানিয়েছেন, ছয় মাসের রসদ জোগাড় করে এনেছেন তিনি। এর শেষ দেখে ছাড়বেন তিনি। যতদিন না তাদের দাবি মেনে নেওয়া হচ্ছে, ততদিন তারা রাস্তাতেই বিক্ষোভ চালিয়ে যাবেন; এই তাদের দৃঢ় সংকল্প।