বাড়ির তুলসী গাছ শুকিয়ে গেলে জীবনে দুর্ভোগ আসতে পারে! জানুন

11
বাড়ির তুলসী গাছ শুকিয়ে গেলে জীবনে দুর্ভোগ আসতে পারে! জানুন

সনাতন ধর্মে বিশ্বাসীদের প্রায় প্রত্যেকের বাড়িতে তুলসী গাছ থাকে। বিশ্বাস করা হয় যে তুলসী গাছ শুকিয়ে যাওয়া অমঙ্গলের লক্ষণ। এই প্রবল গরমে তুলসী গাছের দেখভাল করতে তাই বিশেষ কিছু দিকে নজর রাখতে হবে। তার জন্য জেনে নিন কিছু উপায়। প্রথমত দিনের বেলা তুলসী গাছকে ছয় থেকে আট ঘণ্টা সূর্যালোকে রাখতে হবে। গরমের সময় গাছের গোড়ায় গরম জল দেওয়া যাবে না।

তুলসী গাছ শুকিয়ে গেলে জীবনে দুর্ভোগ আসতে পারে। লাল কিংবা বেলে মাটি তুলসী গাছ লাগানোর পক্ষে আদর্শ। তুলসী গাছে গোবর সার ব্যবহার করা যেতে পারে। গোবর শুকিয়ে গুড়ো করে নিয়ে তুলসী গাছের আশেপাশে দিলে তুলসী সব সময় সবুজ থাকবে।

পাতা সুস্থ রাখার জন্য জিপসাম লবণ ব্যবহার করতে পারেন। জিপসাম লবণ কুড়ি থেকে 25 দিন পর পর ব্যবহার করতে হবে। এছাড়া নির্দিষ্ট সময় অন্তর তুলসী গাছের পাতা ছিঁড়ে নিতে হবে। স্নান না করে তুলসী গাছের পাতা ছেঁড়া উচিত নয়। একাদশীর দিন ভগবানকে তুলসী নিবেদন করার আগের দিন তুলসী পাতা সংগ্রহ করে রাখতে হয়।

তুলসী গাছে মঞ্জুরি আসতে শুরু করলে তুলসীর মঞ্জুরি কেটে নিতে হবে। এছাড়া যে কোনো বৃহস্পতিবার ভগবান বিষ্ণুর চরণে তুলসী নিবেদন করতে হয়। এতে বিষ্ণুর আশীর্বাদ পাওয়া যায়।