এত তাড়াতাড়ি বিয়ে না করলে কেরিয়ার আরও মজবুত হতঃ মধুমিতা

18
এত তাড়াতাড়ি বিয়ে না করলে কেরিয়ার আরও মজবুত হতঃ মধুমিতা

মধুমিতা সরকার, যাকে এক কথায় ছোট পর্দার পাখি বলে ডাকা হয়। একসময় বাংলা ধারাবাহিক থেকে উঠে আসা এই নায়িকা আজ বড় পর্দার নায়িকা হিসেবে নিজের পরিচিতি লাভ করেছেন। সময়ের সাথে সাথে নিজেকে আরও বেশি পাল্টে ফেলেছেন তিনি। আরো বেশি পরিণত হয়েছে তার অভিনয় দক্ষতা। সোশ্যাল মিডিয়াতে একের পর এক দুর্দান্ত ছবি পোস্ট করে ভক্তদের সঙ্গে কিভাবে যোগাযোগ রাখতে হয়, সেটাও বোধ করি খুব ভালোভাবেই জানেন এই অভিনেত্রী।

কলকাতার অন্যতম সফল প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা এখন টলিউডের অন্যতম চর্চার বিষয়। ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বহুদিন আগে থেকেই তিনি খবরের শিরোনামে ছিলেন। প্রথমে অভিনেতা সৌরভ চক্রবর্তী সঙ্গে বেশ কিছুদিন প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ ছিলেন বলে গুঞ্জন শোনা যায় সোশ্যাল মিডিয়াতে। আচমকা শুনতে পাওয়া যায়, তারা নাকি আর এক সঙ্গে থাকছেন না। যদিও আইনিভাবে কোন বিচ্ছেদ হয়নি তবুও দীর্ঘদিনের সম্পর্ক হঠাৎ করে বিচ্ছেদে পরিণত হয়ে যায়।

এক্ষেত্রে মধুমিতা অভিযোগ করেছিলেন, বহু মহিলা সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক ছিল সৌরভ চক্রবর্তীর। পরে নিজেই সম্পর্কে জড়িয়ে না পরলেও অনিন্দিতা বোস এবং সৌরভ দাস এর সম্পর্ক ভাঙনের নেপথ্যে যে রয়েছেন তিনি, তা নিয়ে গুজব ছড়িয়ে ছিল বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে। যদিও সেই ব্যাপারে মুখ খুলতে শোনা যায়নি কাউকে।

সম্প্রতি সৌরভ চক্রবর্তীর একটি বিস্ফোরক মন্তব্যে আরো একবার সরগরম হয়েছে টলিউড। তিনি মধুমিতা সঙ্গে একসাথে কাজ  না করার ইচ্ছা প্রকাশ করছেন। তার মতে, যে তার সঙ্গে ঘর করতে পারেনি, তার সঙ্গে কোনো কাজ করার ইচ্ছা নেই তার।

যদিও এই সমস্ত ব্যাপার নিয়ে মোটেই চিন্তিত নন মধুমিতা সরকার। গসিপে কান না দিয়ে নিজের কাজ নিয়ে ভীষণ খুশি তিনি। সৌরভ দাস এর সঙ্গে সম্পর্কের কথা উড়িয়ে দিয়ে তিনি বলেন, যেটা মিথ্যা সেটা নিয়ে কেন ভাববো? তবে সত্যি কারের ভালোবাসা এলে অবশ্যই তাকে আপন করে নিতে দ্বিধা বোধ করব না।

গুজব আর গসিপের ঠেলায় অতিষ্ঠ হয়ে আপাতত কলকাতা ছেড়ে নিজের পৈত্রিক বাড়িতে রয়েছেন মধুমিতা। আপাতত সেখানেই পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন তিনি। অন্যদিকে এক্ষুনি বিবাহিত তকমা গায়ে না লাগিয়ে নিজের ক্যারিয়ার আরও বেশি শক্ত করার দিকে লক্ষ্য মধুমিতা সরকারের, সে কথা জানান তিনি।

 *এখন টলিউডে নিজের পায়ের তলার মাটি শক্ত করেছেন মধুমিতা। কলকাতার অন্যতম সফল প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে তাঁর ‘সুসম্পর্কের’ কথা এখন টালিগঞ্জে অন্যতম চর্চার বিষয়। মধুমিতা অবশ্য বহু দিন ধরেই চর্চায় আছেন তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে। প্রথমে অভিনেতা পরিচালক সৌরভ চক্রবর্তীর (Sourav Chakraborty) সঙ্গে তাঁর বিয়ে নিয়ে বেশ কিছু দিন আলোচনা হয়েছিল। তাঁদের পিডিএ ছিল দেখার মতো। ছবিঃ সংগৃহীত ছবি।

 *সম্প্রতি সৌরভ চক্রবর্তীও বিস্ফোরক হয়ে বলেছেন যে যার সঙ্গে তিনি ঘর করতে পারেননি সেই মধুমিতার সঙ্গে ছবিতে একত্রে কাজ করার কোনও ইচ্ছে নেই তাঁর। যদিও মধুমিতার সেই সব ছুঁৎমার্গ নেই। তবে মধুমিতা কোনও গসিপে কান দেন না, তাঁর কাজ প্রশংসা পাচ্ছে এতেই খুশি তিনি। ছবিঃ সংগৃহীত ছবি।