টিকাকরণ না হলে পরীক্ষার আয়োজন নয়! জানালেন দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী

13
টিকাকরণ না হলে পরীক্ষার আয়োজন নয়! জানালেন দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী

দেশে করোনার দৌরাত্ম্য বেড়েছে। করোনার জন্য মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার দিন ঘোষণা করেও তা বারংবার পিছিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছেন শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিকেরা। শিক্ষার্থীদের জীবন নিয়ে কোনরকম ঝুঁকি নিতে রাজি নয় কেন্দ্র অথবা রাজ্য। দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী তথা শিক্ষামন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া তো স্পষ্ট জানিয়েই দিয়েছেন যে টিকাকরণ না হলে যদি পরীক্ষার আয়োজন করা হয় তাহলে সে ক্ষেত্রে ছাত্র-ছাত্রীদের জীবন নিয়ে “ছিনিমিনি” খেলা হবে।

উচ্চ মাধ্যমিক-সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তের দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা এবং অন্যান্য প্রবেশিকা পরীক্ষা নিয়ে কেন্দ্রের তরফ থেকে সম্প্রতি একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই বৈঠকেই দিল্লির শিক্ষামন্ত্রী এই দাবি করেছেন। তিনি কেন্দ্রকে জানিয়েছেন যে, পড়ুয়াদের সুরক্ষার কথা না ভেবে পরীক্ষার আয়োজন করা হলে তা সব থেকে বড় ভুল প্রমাণিত হবে।

তিনি আরো বলেছেন, এই মুহূর্তে দেশ জুড়ে প্রায় ১.৫ কোটি দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়া রয়েছে। যার মধ্যে ৯৫ শতাংশ পড়ুয়ার বয়স সাড়ে ১৭-এর বেশি হয়ে গিয়েছে। তাই তিনি আগে পরীক্ষার্থীদের টিকাকরণের উপর জোর দিচ্ছেন। তারপরেই পরীক্ষা নেওয়া হোক। এমনটাই আরজি মণীশ সিসোদিয়ার। তার পরামর্শ অনুযায়ী, এই বিষয়টি নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে পরামর্শ করা উচিত কেন্দ্রের।

ভারতীয় সংস্থার কোভিশিল্ড বা কোভ্যাক্সিন টিকা ছাড়াও অন্যান্য বিদেশি ভ্যাকসিনও যাতে পড়ুয়াদের দেওয়া যায় তার উপর জোর দিয়েছেন তিনি। বিশেষত দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে ফাইজারের টিকা দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন করোনার তৃতীয় ঢেউ কার্যত শিশুদের পক্ষে ভয়ঙ্কর হবে। তাই টিকাকরণ না করিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার বিপক্ষে সওয়াল করছেন তিনি।