একজন নারীর যদি অনেক সঙ্গি থাকে তাহলে সেই নারী বেশ্যা হয়ে যায়! বিস্ফোরক ঋতাভরী

4
একজন নারীর যদি অনেক সঙ্গি থাকে তাহলে সেই নারী বেশ্যা হয়ে যায়! বিস্ফোরক ঋতাভরী

গত বছর থেকে খবরের শিরোনামে বারবার উঠে এসেছে একটাই নাম, নুসরাত জাহান। ব্যক্তিগত সম্পর্ক হোক অথবা রাজনৈতিক সম্পর্ক, সর্বক্ষেত্রে বিতর্কে শিরোনামে উঠে এসেছে শুধুমাত্র নুসরাত জাহানের নাম। এবারে নুসরাত জাহান সঞ্চালিকার ভূমিকায় এসেছেন আমাদের সকলের সামনে। প্রেম নিয়ে বরাবরই সাহসী নুসরাত। এই সাহসী নুসরাতের টক শোয়ের প্রথম এপিসোডে অতিথি হিসেবে এসেছিলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী।

ঋতাভরী চক্রবর্তী নিজের প্রেম জীবন নিয়ে খোলাখুলি কথা বলে নুসরাত জাহানের সঙ্গে। প্রেম এবং সেক্স লাইফ নিয়ে অকপট হলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী। চিরকালই সরাসরি কথা বলতে পছন্দ করেন এই অভিনেত্রী। তিনি জানান, প্রেমিকের সঙ্গে একান্ত সময় কাটাতে গিয়ে কী দুরবস্থা হয়েছিল তাঁর। জানালেন, দুজনে মিলে দেখা করতে গিয়েছিলেন একটি বিলাসবহুল রেস্তোরাঁতে। সেখানে কেউ ছিলনা। হঠাৎ করেই নাকে এলো গন্ধটা। খেয়াল করায় বুঝতে পারলেন, প্রেমিকের সারাগারি জুতার গন্ধ বেরোচ্ছে। তারপর ৬ মাস আর ডেটে যাওয়ার সাহস পাননি ঋতাভরী।

অনুষ্ঠানে ঋতাভরীকে লাল পরি বলে সম্বোধন করেছেন নুসরাত জাহান। আড্ডায় মেতে উঠে ঋতাভরী চক্রবর্তী বলেন, একজন  নারীর যদি অনেক সঙ্গি থাকেন, তাহলে সেই নারী বেশ্যা হয়ে যায়। অন্যদিকে একজন পুরুষের যদি একাধিক নারী সঙ্গিনী থাকে তাহলে তিনি হয়ে যান তারকা।

এরপর যখন নুসরাত ঋতাভরীর কাছে প্রশ্ন করেন, কোন অদ্ভুত জায়গায় কখনো সঙ্গমে লিপ্ত হয়েছ? হাসতে হাসতে ঋতাভরী বলে ওঠেন, রান্নাঘরে তবে নিজের বাড়ির নয় অন্যের বাড়ির। সঙ্গে সঙ্গে কৌতুহলী প্রশ্ন নুসরাতের, সবকিছু ঠিকঠাক ছিল? মাথায় হাত দিয়ে হাসতে হাসতে ঋতাভরী বলে ওঠেন, একদম নয়।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ডিসেম্বরে বাগদান পর্ব সেরেছেন ঋতাভরী চক্রবর্তী। আগামী বছরে বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন তিনি। মনোবিদ তথাগতর সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করছেন নায়িকা।