‘দু’জনকেই সমানভাবে ভালবাসি’ দুজনকে সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিলেন এক যুবক

12
'দু'জনকেই সমানভাবে ভালবাসি' দুজনকে সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিলেন এক যুবক

সম্প্রতি ঝাড়খন্ডে এমন একটি ঘটনা ঘটে গেল যা দেখে সকলেই হতবাক হয়ে গেলেন। একসঙ্গে বহু মানুষের প্রেমে পড়ার গল্প আমরা অনেক সময় শুনেছি কিন্তু এবার ধরা পড়ে সকলের সামনে দুজনকে বিয়ে করার কথা এই হয়তো প্রথম। পেশায় ইটভাটার শ্রমিক সন্দীপ ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা। বহুদিন ধরে দু’জনের সঙ্গে প্রেম করেছিলেন তিনি। সকলের সামনে ধরা পড়ে যাবার পর তিনি বলেন, আমি কাউকে ছাড়তে পারবো না, দু’জনকেই সমানভাবে ভালবাসি আমি। এই বলে সদর্পে সকলের সামনে দুজনকে সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিলেন তিনি।

ওই দুই প্রেমিকার নাম কুসুম এবং সাথী কুমারী। সন্দ্বীপের দুই প্রেমিকা গোটা বিষয়টি খোলা মনে মেনে নিয়েছে। গত তিন বছর ধরে লিভ ইন করছিলেন সন্দ্বীপ এবং কুসুম। একটি সন্তান রয়েছে এই দম্পতির। আইনে বিবাহ না করে দিনের পর দিন একই ছাদের তলায় থাকছিলেন এই জুটি। তারপরই হঠাৎ করেই আসে ছন্দপতন। গতবছর পশ্চিমবঙ্গে ইটভাটার শ্রমিক হিসেবে কাজ করতে আসেন সন্দ্বীপ আর সেখানেই পরিচয় হয়ে যায় সাথীর সঙ্গে।

একসঙ্গে অনেকটা সময় কাটানোর ফলে একে অপরের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা বাড়তে থাকে প্রত্যেক দিন। কাজের পরেও দেখা করতে শুরু করেন এই দুইজন। সম্পর্কের কথা ছড়িয়ে যাবার পর সেই সম্পর্কের কথা কানে আসে সন্দ্বীপের পরিবারের। স্বাভাবিকভাবেই এই সম্পর্ক মেনে নিতে চাইনি পরিবারের কেউ। অন্যদিকে সন্দ্বীপের ভালোবাসা কিন্তু কুসুমের প্রতি একই রকম ছিল এই গোটা সময়টা জুড়ে।

বহু অশান্তির পর পঞ্চায়েত ডাকা হয় এবং সেখানে ঠিক করা হয়, কাউকে ছেড়ে থাকা অসম্ভব সন্দীপ এর পক্ষে। ফলে তিনি দু’জনকেই বিয়ে করবেন। কেউ আর আপত্তি করেননি এই কথায়। অন্যদিকে একসঙ্গে জোড়া মনের মানুষ পেয়ে ভীষণ ভাবে খুশি সন্দ্বীপ নিজেও।