ইস্ট কোস্ট রেলের গাফিলতিতে চরম ভোগান্তির সম্মুখীন হলো হাওড়া থেকে ভুবনেশ্বরগামী যাত্রীরা

9
ইস্ট কোস্ট রেলের গাফিলতিতে চরম ভোগান্তির সম্মুখীন হলো হাওড়া থেকে ভুবনেশ্বরগামী যাত্রীরা

ইস্ট কোস্ট রেলের গাফিলতিতে চরম হয়রানির শিকার হলেন প্রায় কয়েকশো ট্রেন যাত্রী। ট্রেনের সময়সূচী বদলে গেলেও যাত্রীদের তা জানানো হয়নি। এর জেরে ব্যাপক ভোগান্তির সম্মুখীন হতে হলো হাওড়া থেকে ভুবনেশ্বরগামী যাত্রীদের। সূত্রের খবর, এদিন দুপুরে নির্ধারিত সময়ের থেকে এক ঘন্টা আগেই ট্রেন হাওড়া স্টেশন ছেড়ে বেরিয়ে যায়। যাত্রীদের কাছে সেই খবর না থাকায় স্বভাবতই এদিন তারা তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেননি।

পরে স্টেশন মাস্টারের ঘরের সামনে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে শুরু করেন তারা। যাত্রীদের অভিযোগ, পয়লা ডিসেম্বর থেকেই রেলওয়ে দপ্তরের তরফ থেকে নতুন টাইম টেবিল অনুযায়ী ট্রেন চালানো হচ্ছে। অথচ যাত্রীদের সেই সময় সূচি দেওয়া হয়নি। শুধু তাই নয়, ১৩৯ এনকোয়ারিতেও পুরনো সময় দেখাচ্ছে। যার ফলে যাত্রীরা ট্রেনের আসল টাইম টেবিল সম্পর্কে জানতে পারছেন না। ফলস্বরূপ তারা তাদের গন্তব্যেও পৌঁছাতে পারছেন না।

কোভিড পরিস্থিতিতে ট্রেনের সংখ্যা এমনিতেই কম। তার উপর আবার প্রত্যেক যাত্রীকে সংরক্ষিত আসনের টিকিট কেটে যাত্রা করতে হচ্ছে। এমতাবস্থায় অন্য ট্রেনে চড়েও তারা তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছেন না। তবে রেল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে অবশ্য আশ্বাস দিয়ে জানানো হয়েছে, যে সকল যাত্রী রেলের নতুন টাইম টেবিল নিয়ে ভোগান্তির সম্মুখীন হচ্ছেন তাদের অন্য ট্রেনের মাধ্যমে গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়া হবে।

যাত্রীদের অভিযোগ নজরে আসতেই অবশ্য রেল দপ্তরের তরফ থেকে আটটি ট্রেনের সময়সূচি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করা হয়েছে। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় জানানো হয়েছে, ইস্ট কোস্ট রেলের স্পেশাল ট্রেন গুলি জিরো বেসড টাইম টেবিলে কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। ফলস্বরূপ কিছু ট্রেনের স্টপেজ কম করা হয়েছে। এর ফলে নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই ট্রেনগুলি নির্দিষ্ট স্টেশনে পৌঁছে যাবে।