অন্যের নামে কনফার্ম হওয়া টিকিট কী করে নিজের নামে করবেন? জানুন রেলের নিয়ম

5
অন্যের নামে কনফার্ম হওয়া টিকিট কী করে নিজের নামে করবেন? জানুন রেলের নিয়ম

অন্যের নামে কনফার্ম হওয়া টিকিট কী নিজের নামে করা যায়? কি অবাক হচ্ছেন তো! রেলের তরফে যে এ বিষয়ে ঠিক কি নিয়ম রয়েছে তা-ই আজকের প্রতিবেদনে আপনাদের জানাব।

এ বিষয়ে প্রথমেই জেনে রাখতে হবে যে শুধুমাত্র নিজের পরিবারের লোককেই কনফার্ম টিকিট দেওয়া যেতে পারে। এক্ষেত্রে পরিবারের দু’জনের মধ্যে টিকিট বদল করা সম্ভব। অর্থাৎ পরিবারের বাবা, মা, ভাই, বোন, মেয়ে, ছেলে, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যেই এই টিকিট ট্রান্সফার করা সম্ভব। অন্য কেউ না। আর এ ভাবেই টিকিটের পিছনে খরচ হওয়া অর্থ সহজেই বাঁচানো যাবে। তবে হ্যাঁ টিকিট ট্রান্সফার অবশ্যই করতে হবে।

নিয়মানুযায়ী ট্রেন ছাড়ার কমপক্ষে 24 ঘণ্টা আগে এই টিকিট ট্রান্সফার করাতে হয়। এছাড়া আরও একটি বিষয় মনে রাখতে হয় যে অন্যের নামে একটি টিকিট মাত্র একবারই ট্রান্সফার করা সম্ভব। তাই যদি একবার কোনো টিকিট অন্য কোনো ব্যক্তির নামে ট্রান্সফার করা হয়, সেক্ষেত্রে পুনরায় ওই টিকিটকে ট্রান্সফার করা যায় না।

বিষয়টা খুব সুবিধাজনক, কি বলেন! চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক, কী ভাবে নিজের টিকিট অন্য কাউকে দেবেন অথবা পরিবারের অন্য কারোর টিকিট নিজের নামে ট্রান্সফার করবেন?

• প্রথমে টিকিটটির একটি প্রিন্ট আউট বের করে নিতে হবে।

• এরপরে যার নামে টিকিটটি ট্রান্সফার হবে তাঁর আধার ও ভোটার কার্ড নিয়ে নিকটবর্তী টিকিট বুকিং কাউন্টারে পৌঁছতে হবে।

• সেখানে গিয়ে ট্রেন ছাড়ার 24 ঘণ্টা আগে ট্রান্সফারের জন্য আবেদন করতে হবে।

Indian Railways-এর তরফে টিকিট ট্রান্সফারের আবেদনের জন্য 24 ঘণ্টা আগে বলা থাকলেও 2 দিন অথবা 3 দিন আগেই আবেদন করা উচিত। কারণ এই টিকিট ট্রান্সফার কখনও যাত্রীচাপের উপর নির্ভর করে, কখনও আবার কোন যাত্রীর টিকিট কার নামে বদল হচ্ছে, তা কতটা জরুরি তার উপরেও নির্ভর করে। সরকারি কর্মীরা অবশ্য কমপক্ষে 24 ঘণ্টা আগে টিকিট ট্রান্সফারের আবেদন করতে হবে। আবার ব্যক্তিগত কোনো প্রয়োজন থাকলে, অথবা বিয়ে জাতীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে ট্রেন ছাড়ার 48 ঘণ্টা আগেই আবেদন করা ভালো।