লক্ষ্মী দেবীকে তুষ্ট করে কিভাবে ধন সম্পদ অর্জন করা যায়? জেনে নিন চাণক্যের দেওয়া নিদান

11
লক্ষ্মী দেবীকে তুষ্ট করে কিভাবে ধন সম্পদ অর্জন করা যায়? জেনে নিন চাণক্যের দেওয়া নিদান

আজ বৃহস্পতিবার হিন্দু শাস্ত্র অনুযায়ী, দেবী লক্ষ্মীর আরাধনা করলে ধন-সম্পদ, পারিবারিক সুখ-শান্তি বজায় থাকে। ভারতীয় কূটনীতিবিদ তথা অর্থশাস্ত্রের রচয়িতা চাণক্য কৌটিল্যও দীর্ঘকাল আগে লক্ষ্মী দেবীকে তুষ্ট করে কিভাবে ধন সম্পদ অর্জন করা যেতে পারে তার নিদান দিয়ে গেছেন।

প্রাচীন রাজনীতিবিদ, কূটনীতিবিদ চাণক্য কৌটিল্য তার প্রখর জ্ঞান, বুদ্ধি, বিবেচনা ক্ষমতা, দূরদর্শীতার জন্য এখনও প্রসিদ্ধ। জীবদ্দশায় তার ছাত্রদের সফলভাবে জীবনধারণের দিশা দেখিয়ে গিয়েছেন তিনি। তার দেখানো পথ এখনও জনসাধারণকে সফলভাবে জীবন নির্বাহ করার দিশা দেখায়। চাণক্য মতে, শুধুমাত্র লক্ষ্মী দেবীর আরাধনা করলেই হবে না। ধন সম্পদ অর্জনের জন্য চেষ্টা এবং শ্রম, দুইই প্রয়োজন।

তিনি বলেছেন, চেষ্টার অভাব থাকলে সেই ব্যক্তি কখনোই লক্ষ্মী লাভ করতে পারেন না। তবে শ্রমের পাশাপাশি বুদ্ধির উপরেও সমান গুরুত্ব আরোপ করেছেন চাণক্য। তার মতে, প্রত্যুৎপন্নমতি ব্যক্তিরা অর্থাৎ, যারা পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে শীঘ্রই সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে সক্ষম, তাদের জীবনে সফলতা আসে। তাই শ্রমের পাশাপাশি সঠিক সময়ে উপযুক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিরল ক্ষমতা যাদের রয়েছে, তারাই প্রভূত সম্পদের অধিকারী হোন বলে জানিয়ে গেছেন চাণক্য।

তবে, সম্পদের জন্য অহংকার থাকলে লক্ষীদেবী রুষ্ট হন বলে মনে করেন চাণক্য। তিনি বলে গেছেন, অহংকারী ব্যক্তি লক্ষ্মীর কৃপা থেকে বঞ্চিত হোন। পাশাপাশি, যে পরিবারের পারিবারিক অশান্তি দূরে থাকে, দাম্পত্য প্রেম বজায় থাকে সেখানে লক্ষ্মীর কৃপা বাধা থাকে বলেই মনে করেন চাণক্য। আবার সম্পদ রক্ষার জন্য সঞ্চয়ী মনোভাব আবশ্যিক বলে জানিয়েছেন চাণক্য। চাণক্য মতে সঞ্চয়ী ব্যক্তির ঘরে সম্পদ আসে।