জ্যোতিষশাস্ত্রে বিবাহ রেখা বিচার কড়া হয় কিভাবে? রইলো বিবরন

25
জ্যোতিষশাস্ত্রে বিবাহ রেখা বিচার কড়া হয় কিভাবে? রইলো বিবরন

আমাদের প্রত্যেকেরই বাসনা থাকে নিকটতম ব্যক্তিদের থেকে ভালবাসা পাওয়ার। কারণ ভালোবাসা হল এমন এক অনুভূতি যার মাধ্যমে যে কোনো অসম্ভবকে সম্ভব করে তোলা যায়, যার ছোঁয়ায় হাজার দুঃখের মাঝেও মুখে হাসি ফোটে। সে ভালোবাসা যারই হোক না কেন, হতে পারে বাবা-মা, বা বন্ধুস্থানীয় কেউ অথবা প্রেমিক-প্রেমিকা বা স্বামী-স্ত্রী। ভালোবাসার কি কোনো নির্দিষ্ট সংজ্ঞা হয়? কি মনে হয় আপনার? তবে নিঃস্বার্থ ভালোবাসা বাবা মায়ের পর খুব মানুষ দিয়ে থাকে। আর সেরকম জীবনসঙ্গী পাওয়া তো ভাগ্যের ব্যাপার। আপনার জীবনসঙ্গী কেমন হবে তার ইঙ্গিত থাকে আপনার হাতের রেখার বেশ কিছু চিহ্নে। জ্যোতিষশাস্ত্রে এই রেখাই বিবাহ রেখা নামে পরিচিত।

ভাবছেন তো সেই বিবাহ রেখা বিচার করবেন কিভাবে? সে খুব একটা কঠিন কাজ নয়। বাড়িতে বসে হস্তরেখার মাধ্যমে বিবাহ রেখা বিচার করা যায়। হস্তরেখা শাস্ত্রে উল্লেখ আছে, হাতে ক্রস চিহ্ন থাকা অত্যন্ত শুভ। কোনো ব্যক্তির হাতে গুরুগ্রহ অর্থাৎ বৃহস্পতির স্থানে ক্রস বা কাটা চিহ্ন থাকলে ওই ব্যক্তির লাভ ম্যারেজ হয়। শুধু তাই নয়, জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, এইসব ব্যক্তিদের বিয়েও খুব সফল হয় এবং এঁদের সম্পর্ক সারাজীবন দৃঢ় বন্ধনে আবদ্ধ থাকে।

আর যদি কোনো ব্যক্তির হাতে বৃহস্পতির স্থানে স্বস্তিক চিহ্ন থাকে তবে ওই সকল ব্যক্তিরা প্রেম জীবনে তাঁদের সঙ্গীদের প্রতি খুবই সৎ থাকেন। এঁরা তাঁদের জীবনসঙ্গীকে শ্রদ্ধা করেন। এঁরা লোক দেখানো প্রেমের সম্পর্কে কখনোই বিশ্বাস করেন না।

হস্তরেখা শাস্ত্রে উল্লেখ আছে, যে সব ব্যক্তিদের বিবাহ রেখার নীচে একাধিক শাখায় বিভক্ত অনেকগুলি রেখা থাকে, তাঁদেরও লাভ ম্যারেজ হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল থাকে। যদি কোনো ব্যক্তির হৃদয় রেখা থেকে আরেকটি রেখা বেরিয়ে সূর্য রেখার দিকে যায় এবং সূর্য রেখাতে গিয়ে মেশে, তাহলেও সেই ব্যক্তিদের লাভ ম্যারেজ হয়। তবে এই ধরনের ব্যক্তিদের একাধিক বিবাহ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এছাড়া যে সকল ব্যক্তিদের হাতে বৃহস্পতির স্থান অপেক্ষাকৃত উঁচু হয়, তাদের হৃদয় রেখাও সেই অনুপাতে উঁচু স্থানে পৌঁছে যায়। এর অর্থ হল তাঁদের প্রেম জীবন অনেক সফল হবে। অন্যদিকে বৃহস্পতির স্থান অপেক্ষাকৃত উঁচু হওয়ার কারণে এই ধরনের ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে বিবাহের পর ধনবান হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। শুধু প্রেম নয়, অ্যারেঞ্জড ম্যারেজেও সম্পূর্ণ বিশ্বস্ততার সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রাখেন এই ধরনের ব্যক্তিরা।