মেনোপজ আটকাতে গাঁজা ব্যবহার করা কতটা স্বাস্থ্যসম্মত? দেখে নিন

13
মেনোপজ আটকাতে গাঁজা ব্যবহার করা কতটা স্বাস্থ্যসম্মত? দেখে নিন

সম্প্রতি একটি গবেষণায় উঠে এসেছে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সেখানে বলা হয়েছে, মেনোপজের থেকে বাঁচাবার জন্য মহিলারা গাঁজা কে বেছে নিয়েছেন। অনেকেই হয়তো জানেন না মেনোপজ বিষয়টিকে আসলে কি। প্রকৃতির নিয়ম অনুসারে প্রত্যেকটি মেয়েরই মাসিক হয়ে থাকে। তবে আস্তে আস্তে বয়সের কারনে তা বন্ধ হয়ে যায়। যখন মহিলাদের মাসিক বা পিরিয়ড বন্ধ হয়ে যায়, তখন সেই অবস্থাকে মেনোপজ বলা হয়।

প্রত্যেক মহিলার কাছে মাসিক ব্যাপারটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই বিষয়টির মধ্যে অনেক বিষয় নির্ভর করে। মাসিক বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরে মহিলাদের শরীরে ও মনের দুটোরই খুব বেশি পরিমাণে প্রভাব পড়ে। আবার অনেকে এমনটাও মনে করে, মাসিক বন্ধ হওয়ার ফলে হয়তো তাদের রূপ যৌবন সমস্ত কিছু নষ্ট হয়ে যাবে। কিন্তু গবেষণায় বলা হয়েছে এই তথ্য সম্পূর্ণ ভূল ধারনা।

আসলে অ্যাস্ট্রোজেন ও প্রজেস্ট্রেরন এই দুই হরমোনের ক্ষরনের ফলে মাসিক বন্ধ হয়ে যায় মহিলাদের। কিন্তু অনেক মহিলাই আছেন যারা ৪০-৫০ বছর পরেও মাসিক চালিয়ে যান। যাতে তাদের যৌবন জীবনের ওপর কোনো প্রভাব না পড়ে। সম্প্রতি উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি গবেষণা চালানো হয় ২৩২ জন মহিলার ওপর। তার মধ্যে অনেকের মধ্যেই দেখা যায় তারা মাসিক হওয়ার জন্য গাঁজাকে বেছে নিয়েছেন। তাদের মতে গাঁজা খেলে ৪০-৫০ বছর পরেও মাসিক ভালোমতো হবে।

এরমধ্যে ২৭ শতাংশ মহিলা গাঁজা ব্যবহার করেন মাসিক হওয়ার জন্য। অন্যদিকে ১০ শতাংশ মহিলা ভবিষ্যতে গাঁজা ব্যবহার করতে পারেন মেনোপজের হাত থেকে বাঁচার জন্য। আবার ১৯ শতাংশ মহিলা মাসিক ধরে রাখার জন্য নানা ধরনের থেরাপি ব্যবহার করবার চেষ্টা করছেন। তবে মেনোপজ রুখতে গাঁজা ব্যবহার করা, কতটা স্বাস্থ্যসম্মত সেই বিষয়ে চিকিত্সকরা কোনো মতামত দেয়নি।