হানিমুনে গিয়েছিলেন জঙ্গল অ্যাডভেঞ্চার করতে! না খেয়ে ১০ দিন জঙ্গলে আটকে ছিলেন নবদম্পতি

14
হানিমুনে গিয়েছিলেন জঙ্গল অ্যাডভেঞ্চার করতে! না খেয়ে ১০ দিন জঙ্গলে আটকে ছিলেন নবদম্পতি

বিয়ের পরে স্বাভাবিকভাবেই হানিমুনে যেতে পছন্দ করেন মানুষের মালদ্বীপ অথবা কেরালা নিদেনপক্ষে দার্জিলিং। কিন্তু এমন এক দম্পতি রয়েছেন যারা বিয়ের পর হানিমুনে গিয়েছিলেন জঙ্গল অ্যাডভেঞ্চার করতে। কিন্তু জঙ্গলের মধ্যে এমন একটি ভয়ানক অভিজ্ঞতা হবে তাদের, সেটা তারা দুঃস্বপ্নেও ভাবতে পারেননি। একদিন অথবা দুই দিন নয়, গভীর জঙ্গলে ১০ টি রাত কাটানোর ভয়াবহ অভিজ্ঞতা হল তাদের। নিজেদের এই অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন এই দম্পতি। সৌভাগ্যবশত তারা ফিরে আসতে পেয়েছিলেন না হলে সেখানেই শেষ হয়ে যেত তাদের জীবন।

অ্যান্টন এবং নিনা দিয়েছিলেন সাইবেরিয়ার একটি জঙ্গলে। কিন্তু কিছুটা গভীর জঙ্গলে গিয়ে তাদের টায়ার ফেটে গিয়েছিল। সেখান থেকেই শুরু হয় তাদের দুর্ভোগ। জঙ্গলের ভেতর মোবাইল নেটওয়ার্ক তো দূর অস্ত কোন মানুষের দেখা পাওয়া যায়নি। কিছুটা দূরে টুরিস্ট সেলটারে যাওয়াই ঠিক মনে করেন তারা। কিন্তু সেখানেই পর্যটকদের দেখা পাওয়া যায়নি।

ইতিমধ্যেই হঠাৎ করে জংলি ভাল্লুকের পাল্লায় পরতে হয়েছে তাদের। ভাল্লুকের তাড়া খেয়ে কোন রকম একটি গাছের ওপর চড়ে বসে সেই দম্পতি। কিন্তু ভাল্লুক তাদের কোথাও ছেড়ে যায়নি। শিকারের অপেক্ষায় গাছের তলায় একভাবে বসে ছিল সে। কখনো জলের বোতল আবার কখনো পাথর ছুঁড়ে ভালো করে তাড়ানো চেষ্টা করেন তারা। কিন্তু লাভ হয়নি তাতে।

এইভাবে দুই দিন বসে থাকার পর গাছ থেকে পালানোর চেষ্টা করে তারা। কিন্তু বারবার ভাল্লুক টি ফিরে আসায় তারা অবশেষে গাছ থেকে নামার আশা ছেড়ে দেয়। এরপর আরও একটি গাছের আশ্রয় নিতে হয় দম্পতিকে। এইভাবে টানা আট দিন গাছের উপর বসে থেকে ভাল্লুক কে হারিয়ে কোনরকমে আধমরা অবস্থায় নিচে নেমে আসেন তারা। ঠিক এই সময়ে এক উদ্ধারকারী দল তাদের দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। জীবনের এই কঠিন অভিজ্ঞতা আর যাই হোক কোনদিন ভুলতে পারবেন না তারা।