একসঙ্গে ১৭ টি বিষয়ে তার দারুণ জ্ঞান, ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডে নাম তুললো এই ক্ষুদে

11
একসঙ্গে ১৭ টি বিষয়ে তার দারুণ জ্ঞান, ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডে নাম তুললো এই ক্ষুদে

বয়স কিন্তু তার বেশী নয়, মাত্র আড়াই বছর, এর মধ্যেই তার এত প্রতিভা যেটা দেখলে অবাক হতেই হয়। তার প্রতিভার সংখ্যা শুনে যে কেউ অবাক হয়ে যাবে সেটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। কারণ তার একটা কিংবা দুটা প্রতিভা নয়, একেবারে ১৭ টি বিষয়ে তার দারুণ জ্ঞান রয়েছে। সেটার মাধ্যমেই আজ সে ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডে নিজের নাম লেখিয়েছে। বাড়ি তার উত্তর ২৪ পরগণার নিউ ব্যারাকপুরে। ছোট্ট এই ক্ষুদে প্রতিভাবান মেয়েটির নাম অনুপ্রভা দেবনাথ, স্বাভাবিকভাবেই মেয়ের এই স্বীকৃতিতে পরিবারের সকলেই আনন্দিত। বাড়ির মধ্যে শিক্ষার পরিবেশ রয়েছে , সেটার তার মা বাবার পেশার মাধ্যমেই স্পষ্ট বোঝা যায়। মা গায়েত্রী পাঠক ও বাবা রাজীব দেবনাথ দুজনেই শিক্ষকতা করেন।

বাবা আচার্য্য প্রফুল্ল চন্দ্র কলেজের অধ্যাপক ও মা প্রাইমারী স্কুলের শিক্ষিকা। আসলে মেয়ের এই প্রতিভার কথা জানতে পারেন যখন তার বয়স ১৭ মাস। প্রথম দিকে কিছুটা অবাক হলেও তার পরে মেয়ের এই পথে চালনের প্রতি অগ্রসর হয় তারা দুজন। মোবাইল বর্তমানে খুবই ক্ষতিকর একটি জিনিস, কিন্তু তার মা বাবা তাকে মোবাইল দেখতে দিত ঠিকই কিন্তু সেখানে কবিতা, বিভিন্ন গান চালিয়ে দিত। মা বাবার উদ্দেশ্য ছিল যাতে মোবাইল দেখে গান কিংবা কবিতা আওরাতে থাকে সে। মা গায়েত্রী অবসর পেলেই মেয়েকে নিয়ে বসে বিভিন্ন কিছু শেখাত। যেটা পরবর্তীতে দারুণ কাজে লেগেছে ।

ছোট্ট অনুপ্রভা তার স্মৃতিতে যা জমিয়ে রেখেছে তার মধ্যে রয়েছে ২৯ টি রাজ্যের নাম, মানব দেহের বিভিন্ন অংশের চিহ্নিতকরণ, একটি করে বাংলা সহযোগে স্বরবর্ণ, পৃথিবীর সমস্ত মহাদেশের নাম, রঙ, ফলের নাম, সরস্বতী প্রণামমন্ত্র, যদি হিসেব করা যায় তাহলে মোট ১৭ টি বিষয়ে সে অবগত মাত্র ২ বছর ৩ মাসের এই অনুপ্রভা। মা বাবার আসল লক্ষ্য ছিল ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে অংশগ্রহণ করানো তাদের মেয়েকে। সেটা ২ বছর ৪ মাসের মাথাতেই অংশগ্রহণ করে রেকর্ড গড়ে ফেলে ছোট্ট অনুপ্রভা।