বাংলাদেশে ‘পাঠান’ মুক্তি নিয়ে কথা বললেন বাংলাদেশের অন্যতম আলোচিত মুখ হিরো আলম

13
বাংলাদেশে ‘পাঠান’ মুক্তি নিয়ে কথা বললেন বাংলাদেশের অন্যতম আলোচিত মুখ হিরো আলম

দেশ ও বিদেশে জুড়ে এখনও পাঠান জ্বরে কাঁপছে। সেই খানে বাংলাদেশের মতো একটা দেশে পাঠান মুভি মুক্তি পাচ্ছিল না। অনেক কষ্টে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল শাহরুখ খান অভিনীত ছবি ‘পাঠান’-এর। কিন্তু বিক্ষোভের মুখে পড়ে পিছিয়ে যায় ছবির মুক্তি। আসলে ভাষা দিবসের সময় এমন ছবি মুক্তি পাবে অনেকেই চায়নি। এই ভাষা দিবসের মাসে এই ছবির রিলিজ নিয়ে মুখ খোলেন বাংলাদেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। ভারত সহ সারা বিশ্বে প্রথমদিন থেকেই এই ছবি নিয়ে দর্শক মহলে এক্সাইটমেন্ট ছিল। তবে বাংলাদেশে এই ছবির রিলিজ আটকে যাওয়ায় মন ভেঙেছিল বাংলাদেশী ফ্যানেদের। এমনকী বাংলাদেশে রিলিজ না করায় অনেকেই এই ছবি দেখতে উড়ে এসেছিলেন কলকাতায়। আগামী মার্চে অবশেষে বাংলাদেশে মুক্তি পেতে চলেছে এই ছবি।

এই নিয়ে গত ২১ ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে এসে বাংলাদেশে ‘পাঠান’ মুক্তি নিয়ে কথা বললেন বাংলাদেশের অন্যতম আলোচিত মুখ হিরো আলম। তাঁকে আমরা তার অদ্ভুত সব ছবি ও গানের মাধ্যমে জেনে থাকি। সেই তিনি বলেছেন, ‘বিষয়টা আমার কাছে লজ্জাজনক। ভাষার মাসে পাঠান সিনেমা রিলিজ করা উচিত না। আমি মিডিয়ার লোক হলেও বলব, পাঠান ছবি ভাষার মাসে রিলিজ দেওয়ার পক্ষে নই।

সম্প্রতি বলিউডের ‘পাঠান’ বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছিল পরিবেশক ও প্রযোজনা সংস্থা। তবে সেই সময় বাংলাদেশ “পাঠান” মুক্তির অনুমতি দেয়নি বলেই জানা যায়। এমত অবস্থায় দাঁড়িয়ে ওই দেশের সাধারণ সম্পাদক নিপুণ আকতার বলেছিলেন, “বলিউডের ছবি বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে ইতোমধ্যে শিল্পী সমিতির সদস্যরা একত্রিত হয়ে মিটিং করেছি। সংশ্লিষ্টদের কাছে একটি লিখিত প্রস্তাবও দিয়েছিলাম, বলিউডের ছবিটা মুক্তির পর বাংলাদেশে যা লাভ করবে সেখান থেকে ১০% শিল্পী সমিতিতে দেবে। সমিতিতে দিলে আমাদের ফান্ড বাড়বে এবং সেই অর্থ শিল্পীদের জন্যই ব্যয় করা হবে। এখনো এই প্রস্তাবের ফিডব্যাক আসিনি।”
এখন দেখা যাক বাংলাদেশে পাঠান কতটা জনপ্রিয় হয়।