মালদায় যুবতী খুনের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার অভিযুক্ত

18
মালদায় যুবতী খুনের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার অভিযুক্ত

মালদা,৪ ডিসেম্বর : খুনের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে সাফল্য পেল পুখুরিয়া থানার পুলিশ।
উল্লেখ্য গত ৩০ নভেম্বর সকালে মালদা জেলার পুখুরিয়া থানার খৈলসনা গ্রামের একটি আম বাগান থেকে ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় এক যুবতীর মৃতদেহ উদ্ধার হয়। প্রথমে যুবতীর পরিচয় না জানা গেলেও পরবর্তীতে পুলিশ পরিচয় উদ্ধার করে। মৃত যুবতীর নাম নাসিমা খাতুন (২৩) বাড়ি পুখুরিয়া থানার পরানপুর এলাকায়।

গত ৩০ তারিখ সন্ধ্যায় নাসিমার পরিবারের পক্ষ থেকে খুনের অভিযোগ করা হয়। পুকুরিয়া থানায় পুকুরিয়া থানার ওসি গৌতম চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশ তদন্ত শুরু করে খুনের ঘটনার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তারিকুল আলম নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে রানীনগর এলাকা থেকে। অভিযুক্ত যুবকের বাড়ি রানী নগর এলাকায় পেশায় পরিযায়ী শ্রমিক। ধৃত যুবক খুনের অভিযোগ স্বীকার করেছে বলে জানা যায়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায় ধৃত যুবক তারিকুল আলাম পেশায় পরিযায়ী শ্রমিক। গত ৩ মাস আগে কেরালায় শ্রমিকের কাজ করা কালীন ফোন মারফত নাসিমা খাতুন এর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিছুদিন আগে তারিকুল বাড়ি ফিরে আসলে তাদের সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ পর্যায়ে যায়। এরপরে নাসিমা তারিকুলের ওপর চাপ সৃষ্টি করে বিয়ে করার জন্য। তারিকুল পরে জানাই সে বিবাহিত। তার পরেও নাসিমা বিয়ে করতে রাজি হয় এবং গত ৩০ তারিখে বিয়ে করার দাবি রাখতে থাকে।

তারিকুল নানাভাবে নাসিমা কে বোঝানোর চেষ্টা করে যে সে এখন বিবাহ করতে পারবে না, এরপর তারিকুল তাকে একটি ফাঁকা বাগানে নিয়ে গিয়ে চাকু দিয়ে খুন করে তাকে। পুলিশ তদন্ত শুরু করে ফোন মারফত জানতে পারে তারিকুলের সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে। গতকাল দুপুরে তারিকুল কে পুলিশ গ্রেফতার করে। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে তারিকুল খুনের অভিযোগ স্বীকার করে।
ঘটনা সম্পর্কে মৃত যুবতীর আত্মীয় মেহেদুল হক জানাই ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পুলিশ খুনের ঘটনার কিনারা করেছে তাই পুলিশকে ধন্যবাদ জানাই।

অন্যদিকে ধৃত তারিকুল আলম কে সাত দিনের পুলিশি হেফাজত চেয়ে চাঁচোল মহকুমা আদালতে পেশ করে শনিবার পুলিশ।