খুব শীঘ্রই ১৪০০০ কর্মী নিয়োগ করতে চলেছে এইচডিএফসি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ

6
খুব শীঘ্রই ১৪০০০ কর্মী নিয়োগ করতে চলেছে এইচডিএফসি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ

গ্রামীন এলাকাগুলিতে পরিষেবা বাড়াতে এবার এইচডিএফসি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ এক নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করল। ব্যাংক কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ২০২০-২০২১ অর্থ বর্ষের মধ্যে ব্যাংকিং করেসপন্ডেন্স বা “ব্যাঙ্ক মিত্র” এর সংখ্যা বাড়িয়ে ২৫০০০ করা হবে। উল্লেখ্য বর্তমানে এইচডিএফসি ব্যাংকে “ব্যাঙ্ক মিত্র” পদে রয়েছেন ১১০০০ জন। ২০২১ এর মার্চ মাসের মধ্যেই “ব্যাঙ্ক মিত্র” পদে আরো ১৪০০০ কর্মী নিয়োগ করতে চলেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

সম্প্রতি বিশিষ্ট সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে এইচডিএফসি ব্যাঙ্কের সরকারি প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবসা এবং স্টার্টআপের দেশের প্রধান স্মিতা ভগত জানালেন, দেশের প্রত্যন্ত গ্রামীণ এলাকাগুলিতে গ্রাহকদের উপযুক্ত পরিষেবা দিতেই এই অর্থ বর্ষের মধ্যে আরো ১৪০০০ জনকে “ব্যাঙ্ক মিত্র” পদে নিয়োগ করা হতে চলেছে। এই পদে নিয়োজিত কর্মীদের কাজ হবে, গ্রামীণ এলাকায় অ্যাকাউন্ট খোলা, ফিক্সড ডিপোজিট, টাকা জমা দেওয়া, বাড়ির কাছে ঋণ প্রদান-সহ ব্যাঙ্কের যাবতীয় পরিষেবা প্রদান করা।

ব্যাঙ্ক মিত্র পদে আবেদন করার জন্য ইচ্ছুক ব্যক্তিকে নিকটবর্তী ব্যাংক শাখায় গিয়ে খোঁজ নিতে হবে। ব্যাংক থেকে সরাসরি আবেদন করা যাবে। অথবা, সেবা কেন্দ্র খুলেও ব্যাঙ্ক মিত্র হওয়া যাবে। আবেদনকারীর নিজস্ব ল্যাপটপ অথবা কম্পিউটার, ইন্টারনেট পরিষেবা, প্রিন্টার এবং স্ক্যানার থাকতে হবে। পাশাপাশি অন্ততপক্ষে ১০০ বর্গ ফুটের মধ্যে একটি অফিস থাকতে হবে।

এই পদে আবেদন করার জন্য আবেদনকারীর ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে দশম শ্রেণী পাস হতে হবে। দশম শ্রেণীর মার্কশিট এবং সার্টিফিকেট জমা করতে হবে। পাশাপাশি,প্যান কার্ড, আধার কার্ড, পাসপোর্ট বা ভোটার আইডি থাকা বাধ্যতামূলক। এছাড়াও আবেদনকারীর বিদ্যুতের বিল, টেলিফোনের বিল, রেশন কার্ড, আধার কার্ড বা পাসপোর্ট লাগবে। তার সাথে আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং ব্যাঙ্কের পাসবুক বা ক্যানসেলড চেক আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় নথি হিসেবে গণ্য হবে।