বুধবার বিকেলে প্রায় তিন বছর পর জনসমক্ষে এলেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রধান বিমল গুরুং

5
বুধবার বিকেলে প্রায় তিন বছর পর জনসমক্ষে এলেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রধান বিমল গুরুং

প্রায় তিন বছর পর জনসমক্ষে এলেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রধান বিমল গুরুং। বুধবার বিকেল ৫টা নাগাদ বিধাননগরের গোর্খা ভবনে একটি সাংবাদিক বৈঠকের ডাক দিয়েছিল গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। সেই উদ্দেশ্যে বিধাননগরের গোর্খা ভবনের সামনে পৌঁছান তিনি। কিন্তু গুরুংদের জন্যে গোর্খা ভবনের দরজা খোলা হয়নি। অগত্যা কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দেন তিনি।

উল্লেখ্য, বুধবার গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার তরফ থেকে একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে সাংবাদিক সম্মেলনের কথা জানানো হয়। দলের সমস্ত সদস্যদের এ দিন বিকেল পাঁচটা নাগাদ গোর্খা ভবনের সামনে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেইমতো বিকেল চারটে নাগাদ ভবনের সামনে পৌঁছে যান বিমল গুরুং। কিন্তু গোর্খা ভবনের কর্তৃপক্ষ জনমুক্তি মোর্চার জন্য দরজা খুলতে রাজি হলো না।

গোর্খা ভবন কর্তৃপক্ষের যুক্তি, কোন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে এখানে সাংবাদিক সম্মেলন করতে দেওয়ার নিয়ম নেই। প্রায় ৪০ মিনিট অপেক্ষা করার পর অবশেষে কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দেন বিমল গুরুং। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে দার্জিলিংয়ের অশান্তির পর বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে UAPA-র ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। পাশাপাশি, তার বিরুদ্ধে অমিতাভ মালিক নামক এক পুলিশ কর্মীকে হত্যার অভিযোগ আছে।

খুনের পাশাপাশি একাধিক মামলায় অভিযুক্ত বিমল গুরুং এরপর এতদিন পর্যন্ত আত্মগোপন করেছিলেন। ভিডিও বার্তার মাধ্যমে দলীয় কর্মীদের কাছে উপস্থিত হলেও, ২০১৭ সালের পর থেকে তাকে কখনো প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। সিআইডি-সহ পশ্চিমবঙ্গের একাধিক তদন্তকারী সংস্থা তাকে খুঁজছে।